E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

নামে আসামি হলেও বয়সে শিশু

২০১৭ সেপ্টেম্বর ২৪ ১৫:৩৪:৩৯
নামে আসামি হলেও বয়সে শিশু

বিশেষ প্রতিনিধি : নামের কারণে যমে ধরেছে কথাটি পুরনো হলেও বর্তমানে আসামীর নামের সাথে নিরাপরাধ মানুষের নামের মিল থাকায় অনেক সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক হয়রানির পাশাপাশি অনেকে আবার কারাভোগও করেছে। ঠিক এমনিভাবে হয়রানির শিকার মো. মোস্তফা কামাল। 

জানা যায়, কুমিল্লা সদর থানার অন্তর্গত আলেখারচর গ্রামের মো. ছিদ্দিকুর রহমানের (৫৫) ছেলে মো. মোস্তফা কামালকে কিছুদিন পর-পর পুলিশ গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে বিস্তারিত তথ্য-উপাত্ত পেয়ে তখন আবার ছেড়ে দেয়। এমনি করে তাকে তিনবার থানায় নিয়ে গেছে। প্রতিবারই পুলিশ জানতে পারে যে, গ্রেফতারের ওয়ারেন্ট ইস্যু হওয়া ৬(৪)৯৫ জিআর নং- ৫৭৭/৯৫ ধারা-৪২১ দন্ডবিধির অভিযুক্ত আসামীর নাম-ঠিকানার সাথে মো. মোস্তফা কামালের নাম-ঠিকানার মিল রয়েছে।

এই পর্যন্ত তিন বার থানায় নিয়ে গেছে কর্তব্যরত পুলিশ। এমনকি গভীর রাতেও ঘুম থেকে ডেকে তুলে নেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। যা নিয়ে এলাকাতে মো. মোস্তফা কামাল ও তার পরিবারে উপর এক ধরনের অজানা নেতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে।

এ ব্যাপারে হয়রানির শিকার মো. মোস্তফা কামাল তার ভোটার আইডি কার্ড দেখিয়ে বলেন, ১৯৯৩ সালের ৯ ডিসেম্বর আমার জন্ম আর মামলা করেছে ১৯৯৫ সালে। তখন আমার বয়স মাত্র প্রায় ১ বছর ৪ মাস। তাহলে এই শিশু বয়সে আমি কী করে উক্ত দন্ডবিধির মামলার আসামী হতে পারি তা আমার বোধগম্য নয়।

পুলিশের হয়রানির ব্যাপারে মো. মোস্তফা কামাল আরও বলেন, আমাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে, সবাই দেখছে। আবার গভীর রাতেও ঘুম থেকে তুলে আমাকে আসামীর চোখে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যাচ্ছে, তাও আশেপাশের সবাই দেখছে। এইভাবে বার বার মুল আসামী না হয়েও গ্রেফতার হওয়ায় এলাকার মানুষ ভাবছে-আমি অপরাধী। আর না হলে পুলিশ আমাকে গ্রেফতার করবে কেন ইত্যাদি-ইত্যাদি। এখন আমার ভিতরেও অজানা ভয় কাজ করছে। প্রতিবারই কিছু না কিছু টাকা খরছ হচ্ছে। পরিবার আমাকে নিয়ে সবসময় অজানা এক আতঙ্কে থাকে।

এ ব্যাপারে কুমিলøা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতার সাথে টেলিফোনে কথা হলে তিনি জানান, এটা অনেক আগের ঘটনা। আমি এই থানায় নতুন এসেছি। এ ব্যাপারে আসলে আমার কোনও মন্তব্য নেই।

এখন তার পরিবারের দাবি, এইভাবে মোস্তফা কামালকে বার-বার হয়রানি বা সমাজের চোখে অপরাধী না বানিয়ে প্রকৃত অপরাধীকে গ্রেফতার করা হোক। সকল তথ্য-উপাত্ত যাচাই-বাচাই করে তাদের অজানা আতঙ্ক থেকে মুক্ত করা হোক।

উল্লেখ্য, মো. মোস্তফা কামাল, পিতা-মো. ছিদ্দিকুর রহমান, সাং আলেখারচর, কোতয়ালী, জেলা কুমিল্লা-এই ঠিকায়না ইস্যু করে রাজধানীর মতিঝিল থানায় (মামলা নং ৬(৪)৯৫, ধারা-৪২১ দন্ডবিধি) মামলা করা হয় যখন তার বয়স ১ বছর ৪ মাস। মো. আবু তালেব মহানগর হাকিমের আদালত হতে গ্রেফতারি ওয়ারেন্ট ইস্যু হলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে এবং পরবর্তীতে তথ্য-উপাত্ত যাচাই-বাচাই করে ছেড়ে দেয়।

(কেসিটি/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test