E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

চাঁদপুরে শিশু শ্রমে মা ইলিশ নিধন

২০১৭ অক্টোবর ১০ ১৬:৩৪:১২
চাঁদপুরে শিশু শ্রমে মা ইলিশ নিধন

চাঁদপুর প্রতিনিধি : ১ অক্টোবর ২২ অক্টোবর পর্যন্ত প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় প্রশাসনের কঠোর  নজরদারি ও অবস্থানের কারণে চাঁদপুরের অসাধু জেলেরা সুবিধা করতে না পেরে নতুন কৌশল নিয়েছে। এসব জেলে মাছ শিকারে শিশু শ্রম ব্যবহার করছে। জেলেরা তারা নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে থেকে ৮ থেকে ১৫ বছরের শিশু-কিশোরদের দিয়ে মা  ইলিশ নিধন করাচ্ছে।

মা ইলিশ রক্ষায় সরকার চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনার ১শ’ কিলোমিটার এলাকায় ১ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত অভয়াশ্রম ঘোষণা করেছে। এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে অভয়াশ্রম ঘোষিত নদী এলাকাকে সুরক্ষিত রাখতে চাঁদপুরে টাক্সফোর্স, কোস্টগার্ড, নৌ পুলিশ কাজ করছে। অথচ স্থানীয় প্রশাসনের এতো কঠোর নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জেলেরা মা ইলিশ নিধন করে যাচ্ছে।

সোমবার দীর্ঘ সময় পদ্মা-মেঘনায় ঘুরে দেখা যায় নদীতে কিছু জেলে নিষিদ্ধ কারেন্ট জালের সাহায্যে মা ইলিশ নিধন করছে। এবিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কজন জেলের সাথে কথা হলে তারা জানায়, সরকার এবার আইন কড়াকড়ি করেছে। মা ইলিশ ধরার অপরাধে জেলেদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ডও দেয়া হচ্ছে। এজন্য তারা শিশু-কিশোরদের দিয়েই মাছ নিধন করছে। কারণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা শিশুদের আটক করলেও তাদের অভিভাবকরা মুচলেকা দিয়ে সহজেই শিশুদের ছাড়িয়ে আনতে পারে।

সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড ও ২নং ওয়ার্ডে পদ্মা-পাড়ের অংশে গিয়ে বেশ কয়েকটি আড়তের দেখা পাওয়া যায় সেখানে প্রকাশ্যে মানুষের উপস্থিতিতে হাঁক-ডাক দিয়ে পাইকারদের কাছে মা ইলিশ বিক্রি করা হচ্ছে। এছাড়াও ইউনিয়নের দেওয়ান বাজার আড়তে স্থানীয় রুহুল আমিনের ছেলে ইব্রাহিমসহ বেশ কয়েকজন ডাক উঠিয়ে মা ইলিশ বিক্রি করছে। এক সপ্তাহ পর চাঁদপুরের অসাধু জেলেদের আইন ভঙ্গ করার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে তাদের জাল নৌকা নিয়ে মা ইলিশ নিধনে অংশ নেয়ার প্রস্তুতি দেখে।


(ইউএইচ/এসপি/অক্টোবর ১০, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test