E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

প্রধানমন্ত্রীর জনসভার আগে সহিংসতা, আহত তিন

২০১৭ ডিসেম্বর ৩১ ১৫:০৭:৩২
প্রধানমন্ত্রীর জনসভার আগে সহিংসতা, আহত তিন

যশোর প্রতিনিধি : যশোরে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় কে আগে ঢুকবে, এ নিয়ে মারামারি হয়েছে দুই পক্ষে। আর এ সময় ছুরিকাঘাতে যুবলীগের তিন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। পিটুনিতে আহত হয়েছে আরও একজন।

আহতরা হলেন শহরের ৬ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি আশরাফুল কবির শিকদার, এবং যুবলীগ কর্মী রাজিবুল আলম, বিপ্লব ও ঈমাম হোসেন৷ তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার যশোরে প্রধানমন্ত্রীর যশোর সফর উপলক্ষে স্থানীয় ঈদগাহ ময়দানে সমাবেশের আয়োজন করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। বিকাল তিনটায় এই সমাবেশ শুরুর কথা থাকলেও দলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা সকাল থেকেই সমাবেশস্থলের দিকে আসতে থাকেন।হঠাৎঈদগাহের পাশে গোলযোগ তৈরি হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঈদগাহ ময়দানে প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশস্থলে আগে ঢোকাকে কেন্দ্র করে সংঘাতে জড়ায় দুই পক্ষ।

আহতরা জানান তারা সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদের অনুসারী। সকাল সাড়ে দশটার দিকে ঈদগাহের গেটের সামনে দিয়ে মিছিল নিয়ে ঈদগাহের ভেতরে ঢুকতে গেলে প্রতিপক্ষ তাদেরকে বাধা দেয় এবং এক পর্যায়ে ছুরি নিয়ে হামলে পড়ে। আর চারজন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অন্য নেতাকর্মীরা উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে৷

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আব্দুর রশীদ বলেন, আহতদের তিনজনকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে অপর জনকে মারপিট করা হয়েছে৷ এই চিকিৎসক জানান, আহতদের মধ্যে আশরাফুল কবির শিকদারের জখম গুরুতর।

যশোর আওয়ামী লীগ সদর আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদের সঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের দ্বন্দ্ব রয়েছে। দুই নেতার দ্বন্দ্বের জেরে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনে আছে বিভক্তি। দুই পক্ষ নানা সময় মারামারিতে জড়িয়েছে, খুনোখুনিও হয়েছে।

তবে প্রধানমন্ত্রীর জনসভার আগে পুরনো দ্বন্দ্বের প্রকাশ ঘটেছে কি না, এ নিয়ে কোনো নেতা নাম প্রকাশ করে কিছু বলতে চাইছেন না।

এদিকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর জনসভার আশপাশে অবস্থান এবং মারামারির ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মী নিরাপত্তা আরও জোরদার করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় পুলিশের পাশাপাশি বিশেষ বাহিনী স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স-এসএসএফও তৎপর থাকে। এর মধ্যেই এই ধরনের ঘটনা নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যেই নানা আলোচনা তৈরি করেছে।

যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আজমল হুদা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনায় চারজন আহত হয়েছেন। তারা জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

(ওএস/এসপি/ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test