Ena Properties
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

লোহাগড়ায় সরকারি বই কালোবাজারে বিক্রির সময় জব্দ

২০১৮ জানুয়ারি ১৪ ১৬:১২:৩৫
লোহাগড়ায় সরকারি বই কালোবাজারে বিক্রির সময় জব্দ

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ায় মাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন শ্রেনীর বিপুল পরিমান সরকারী বই কালো বাজারে বিক্রির সময় এলাকাবাসী আটক করে পুলিশের নিকট সোর্পদ করেছে। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া উপজেলার শালনগর মর্ডান একাডেমী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কাজী মহিউদ্দীন বিদ্যালয় থেকে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত ৭ম, ৮ম, ৯ম এবং ১০ম শ্রেনীর ২০১৮ ও ২০১৭ সালের ৩২০ কেজি বই শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণ না করে কেজি দরে কালো বাজারে বিক্রি করে দিয়েছেন।

গত শনিবার দুপুরে বিদ্যালয় থেকে এ বই বিক্রি করা হয় উপজেলার লাহুড়িয়া বাজারের ভাঙ্গাড়ী (পুরাতন মালামাল ক্রেতা) ব্যবসায়ী ইকরামুল বিশ্বাস ও লাল চাঁদের কাছে। ওই ব্যবসায়ীরা কেনা বই বিদ্যালয় থেকে গত শনিবার রাত ৯ টার দিকে নছিমন যোগে লাহুড়িয়া বাজারে নিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী মন্ডলবাগ এলাকা থেকে ওই বই আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে লাহুড়িয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস আই শফিকুল ইসলাম উক্ত বই জব্দ করে শালনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খান তসলুর রহমানের জিম্মায় রেখে দেন।

ভাঙ্গাড়ী ব্যবসায়ী লাল চাঁদ জানান, শালনগর মর্ডন একাডেমীর মহিউদ্দীন স্যারের কাছ থেকে ৫০০ কেজি পুরাতন ,নতুন বই, খাতাপত্র ও রড-টিন কিনেছি। সন্ধ্যার সময় নৈশ প্রহরীর কাছে ৭ হাজার টাকা দিয়ে মালামাল নছিমনে করে নিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী ঘেরাও করে পুলিশকে খবর দেয়।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কাজী মহিউদ্দীন বলেন,বিদ্যারয় থেকে কিছু পুরাতন বই-খাতা বিক্রি করা হয়েছে। তার মধ্যে ২০১৮ সালের বই কিভাবে এলো, তা আমার জানা নেই।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকতা শহিদুল ইসলাম গতকাল রোববার সাংবাদিকদের বলেন, সরকারী বই বাজারে বিক্রি করা যাবে না। এ ব্যাপারে ফোন পেয়েছি তবে লিখিতভাবে কোন অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

লাহুড়িয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস আই শফিকুল ইসলাম বই জব্দের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

(আরএম/এসপি/জানুয়ারি ১৪, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৭ আগস্ট ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test