E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

তারেককে দেশে আনতে ইন্টারপোলের দ্বারস্থ সরকার : কাদের

২০১৮ ফেব্রুয়ারি ১২ ১৫:১৭:২১
তারেককে দেশে আনতে ইন্টারপোলের দ্বারস্থ সরকার : কাদের

কক্সবাজার প্রতিনিধি : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও বিদেশে অর্থপাচারের মামলায় দণ্ডিত বিএনপি নেতা তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকার আন্তর্জাতিক পুলিশি সংস্থা ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে বলে জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।

সোমবার কক্সবাজারে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান ওবায়দুল কাদের। কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে শহীদ এটিএম জাফর আলম আরকান সড়কের নামকরণ ও গেট উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হলেও তার ছেলে তারেক রহমানসহ অন্য আসামিদেরকে দেয়া হয় ১০ বছরের কারাদণ্ড।

এর আগে ২০১৬ সালের ২১ জুলাই তারেক রহমানের সাত বছরের কারাদণ্ড এবং ২০ কোটি টাকা জরিমানার আদেশ দেয় হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। এর বাইরে ২০০৪ সালের ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় তার মৃত্যুদণ্ড চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ। এই মামলার বিচারও শেষ পর্যায়ে আছে।

এর বাইরেও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে আরও একাধিক মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে।

২০০৭ সালে জরুরি অবস্থা জারির পর দুর্নীতির মামলায় গ্রেপ্তার তারেক রহমান পরের বছর প্যারোলে মুক্তি পেয়ে চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে যান। ১০ বছর ধরেই তিনি সেখানে অবস্থান করছেন।

খালেদা জিয়ার রায়ের আগের দিন লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর এবং বঙ্গবন্ধুর ছবি অবমাননার ঘটনায়ও তাদের রহমান দায়ী বলে অভিযোগ করেন কাদের। বলেন, ‘তিনি (তারেক রহমান) লন্ডনে অবস্থান করে নানাভাবে এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে চলেছেন।’

তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমরা ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তাদের সদরদপ্তর ফ্রান্সে অবস্থিত।’

খালেদা জিয়াকে কারাগারে ‘প্রাপ্য’ সুযোগ-সুবিধা না দেয়ার বিষয়ে বিএনপির অভিযোগ নিয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘উনাকে জেলকোড অনুযায়ী সকল সুযোগ-সুবিধা দেয়া হয়েছে। জেলে থেকে গুলশানের সুযোগ-সুবিধা চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয়।’

সরকার বিএনপিকে ভাঙার চেষ্টা করছে বলে দলটির নেতাদের অভিযোগের বিষয়ে কাদের বলেন, ‘বিএনপি ভাঙার জন্য দলটির নেতারাই যথেষ্ট। অন্যরা কেন তাদের দলে ভাঙন ধরাবে? তারা কি এসব কাজ কম পারেন? অতীতে তাদের দল ভাঙার নজির আমরা দেখেছি।’

আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, স্থানীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি, সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

(ওএস/এসপি/ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২১ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test