E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মৌলভীবাজারে বিরল প্রজাতির লজ্জাবতি বানর উদ্ধার 

২০১৮ জুন ২৭ ১৪:৫২:৫৭
মৌলভীবাজারে বিরল প্রজাতির লজ্জাবতি বানর উদ্ধার 

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম, মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজারে সাদা রঙের একটি বিরল প্রজাতির লজ্জাবতি বানর উদ্ধার করেছেন বন বিভাগের কর্মকর্তারা। 

বুধবার (২৭ জুন) মৌলভীবাজার শহরের গোবিন্দশ্রী এলাকার সদর হাসপাতাল কর্মচারী আব্দুল মানিকের বাড়ি থেকে বানরটি উদ্ধার করা হয়। মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে গোবিন্দশ্রী এলাকার বারু মিয়ার বাড়ির পাশের লোকালয়ে আব্দুল মানিকের ছেলে তারেক ও ওয়াকিল মিয়া সহ স্থানীয় কয়েকজন যুবক বানরটি দেখতে পেয়ে সেটিকে ধরে ফেলেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে ঐ এলাকা সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বিরল প্রজাতির এই বানরটি বিক্রি হচ্ছে।

পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বানরটি স্থানীয় আব্দুল মানিকের ছেলে তারেক মিয়ার কাছে সংরক্ষিত আছে।

এদিকে তারেক বানরটি তার কাছে আছে কিনা জানতে চাইলে প্রথমে সে অস্বীকার করে বলে সে বানরটি তার বন্ধুর কাছে হস্তান্ত করেছে। বানরটির বিষয়ে একেক সময় একেক ধরনে তথ্য দিতে থাকে চতুর তারেক। এসময় তারেককে বন্যপ্রানী সংরক্ষণ,বিক্রি অবৈধ বললেও সে এই প্রতিবেদককে বানরটি দেখাতে অপারগতা প্রকাশ করলে সাথে সাথে স্থানীয় বন বিভাগকে বিষয়টি জানানো হয়।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে বর্ষিজোরা ইকোপার্কের বিট কর্মকর্তা মোনায়েম হোসেনের নের্তৃত্তে বন বিভাগের লোকজন গোবিন্দশ্রী এলাকায় তারেকের বাড়িতে উপস্তিত হলে প্রথমে সে বানরটি তার কাছে থাকার বিষয়টি অস্বীকার করে। পরে স্বীকার করলেও বন বিভাগের লোকজনকে বানরটি হস্তান্তর করবেনা বলে জানায়, এসময় বনভিাগের লোকজন মৌলভীবাজার পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কান্সিলর আয়াছ আহমদ ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শেখ রুমেল আহমদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে সাথে সাথে তারা দু’জনই উপস্থিত হন। পরে তাদের দু’জনের উপস্থিতিতে বন বিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে বানরটি হস্তান্ত করা হয়।

এবিষয়ে মৌলভীবাজার পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কান্সিলর আয়াছ আহমদের সাথে মঙ্গলবার রাতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে বিষয়টি তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান।

বানরটি হস্তান্তরের সত্যতা স্বীকার করে মৌলভীবাজার সদর বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা মোনায়েম হোসেন বলেন, এটি বিরল প্রজাতির লজ্জাবতি বানর, বন্যার কারনে হয়তো এটি এ জায়গায় আসতে পারে। তিনি বলেন, বর্ষিজোরা ইকোপার্কে এই বানরটির অস্তিত্ত থাকলেও এটি অন্য কোথাও থেকে আসতে পারে। মোনায়েম হোসেন আরো বলেন, আটক বানরটি আমরা লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে ছেড়ে দেবো ,কারন এই বানরের অবাধ বিচরণ রয়েছে এই উদ্যানে।

বন্যপ্রাণী গবেষক তানিয়া খান বলেন, লজ্জাবতি বানর আসলে একটি বিরল প্রজাতির প্রাণী, এই প্রাণীটি বর্ষিজোরা ইকোপার্ক, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান ও সাতছড়ি উদ্যানে আছে। তিনি বলেন, কেউ যদি এজাতীয় প্রাণী পেয়ে থাকে তাহলে সেটি যথাযত কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর না করে সেটি আটক রাখা সম্পুর্ণ অবৈধ।

(একে/এসপি/জুন ২৭, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test