E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

নবীগঞ্জ টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে গিয়ে দুই কিশোরী উধাও

২০১৮ জুলাই ২০ ১৫:৩৩:৫৪
নবীগঞ্জ টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে গিয়ে দুই কিশোরী উধাও

মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ : নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের ভিতরের টিউবওয়েল থেকে কলসি নিয়ে পানি আনতে গিয়ে উধাও হয়েছেন ১১ বছর বয়সী দুই কিশোরী। নিখোঁজ দুই কিশোরী উপজেলা পরিষদের পার্শে অবস্থিত আলী ভিলার বাসিন্দা। ঘটনাটি ঘঠেছে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধা ৬ টার দিকে। এ ঘটনায় শহরের মাইকিং করলে রিতিমত চৈ হৈ শুরু হয়ে যায় পৌর এলাকাজুড়ে। 

খবর পেয়ে স্থানীয় কাউন্সিলরসহ বিভিন্ন স্থরের লোকজন ঘটনাস্থল ও দুই কিশোরী বাসভবনে ভীড় জমান। রাত ১২ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

সূত্রে প্রকাশ, নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার ফতেহপুর গ্রামের ফুরকান মিয়া ও পৌর এলাকার কানাইপুর গ্রামের রাখেশ সুত্রধর পরিবার পরিজন নিয়ে পৌর এলাকার অভয়নগরস্থ আলী ভিলায় ভাড়াটিয়া হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধায় ফুরকান মিয়ার কিশোরী কন্যা চাদনি বেগম (১১) ও রাখেশ সুত্রধরের কন্যা ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী স্বর্ণা সূত্রধর (১২) পার্শবর্তী উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের ভিতরের একটি টিউবওয়েল থেকে কলসি নিয়ে পানি আনতে যায়। কিন্তু ঘন্টা দু’এক অতিবাহিত হয়ে গেলে উল্লেখিত কিশোরীদ্বয় ফিরে না আসায় তাদের পরিবারের লোকজন উপজেলা কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখেন টিউবওয়েলের পাশে পড়ে আছে কলস দুটি কিন্তু নেই স্বর্ণা ও চাদনি। এরপর তাদের পিতা-মাতা ও প্রতিবেশীরা সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করেও তাদের কোন সন্ধান পাননি।

আলী ভিলার বাসিন্দা রিকশা চালক জসিম উদ্দিন জানায়, সে রিকশা নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসার সামন থেকে যাত্রী নিয়ে নতুন বাজার যাওয়ার পথে হীরা মিয়া গার্লস হাই স্কুলের সামনে তাদেরকে হেটে যেতে দেখেছে।

ওই ভিলার অপর বাসিন্দা মারুফ আহমেদ জানায়, রাত ৮টার দিকে সে রিকশাযোগে বাসায় ফেরার সময় শহরের আর্দশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে স্বর্ণা ও চাদনিকে দেখতে পেয়েছে।

নিখোঁজ চাদনির পিতা ফুরকান মিয়া জানান, তার ১০ ছেলে-মেয়ের মধ্যে চাদনি নবীগঞ্জ আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩য় শ্রেণী পর্যন্ত লেখা-পড়া করেছে। চাদনিকে না পেয়ে ফুরকান মিয়া ও তার স্ত্রী বার বার মুর্ছা যান।

অপর নিখোঁজ স্বর্ণা সূত্রধরের পিতা রাখেশ সুত্রধর জানান, তার ৫ ছেলে-মেয়ের মধ্যে স্বর্ণা নবীগঞ্জ আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী। সে পানি আনতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি। বাকরূদ্ধ হয়ে পড়া রাখেশ কথা বলতে গিয়ে মাটিতে লুটে পড়ে যান।

এদিকে, আলী ভিলার বিভিন্ন সূত্র জানায়, স্বর্ণা এবং চাদনি দুজন ঘনিষ্ট বান্ধবি। তাদেরকে প্রায় সময়ই মোবাইল ফোনে দীর্ঘক্ষন কথা বলতে দেখেছেন প্রতিবেশীরা।প্রতিবেশীদের ধারণা প্রেমিকের সাথে দুই বান্ধবী পালিয়ে যেতে পারে।

রাত ১২ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি এবং নবীগঞ্জ থানায় কোন জিডি করা হয়নি।

সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুন্দর আলী জানান, তিনি ঘটনাটি শুনে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে এসেছেন এবং তাদেরকে খোঁজার জন্য চারদিকে লোক পাঠিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসান বলেন, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। এবং এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান জানান, এ ঘটনা সর্ম্পকে তিনি অবগত নন।

(এমআরটি/এসপি/জুলাই ২০, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test