E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মাগুরায় ওসির বিরুদ্ধে মামলা

২০১৮ জুলাই ২৫ ২৩:৩০:০১
মাগুরায় ওসির বিরুদ্ধে মামলা

মাগুরা প্রতিনিধি : ঘুষ আদায় ও মাদক ব্যবসায়িদের পৃষ্টপোষকতার অভিযোগে দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে মাগুরা শালিখা থানার ওসি রবিউল হোসেনে বিরুদ্ধে মাগুরার আদালাতে মামলা দায়ের হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে জেলা দুর্নীতি দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলাটি দায়ের করেন শালিখা উপজেলার শাবলাট গ্রামের মৃত বিশারত মোল্লার পুত্র মহব্বত হোসেন। আদালত মামলাটি দুর্নীতি দমন কমিশনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।

বাদীর আইনজীবি শেখ গোলাম নবী শাহিন জানান, এ বছরের ৩১ মার্চ শালিখা উপজেলার শাবলাট গ্রামের কামরুল মোল্যার বাড়িতে টেকনাফের জামাল হোসেনসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ি বিপুল পরিমান ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে অবস্থান করছে বলে তার বাদী মহব্বত হোসেন জানতে পারেন। একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে মহব্বত হোসেন বিষয়টি শালিখা থানাকে অবহিত করেন। শালিখা থানা পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ আসামীদের আটক করেন। পরে ওসি রবিউল হোসেন আসামীদের নিকট থেকে মোটা অংকের ঘুষ নিয়ে ২০ হাজার পিসের পরিবর্তে ২২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার দেখিয়ে আসামীদের আদালতে চালান করেন এবং বাকি ইয়াবা তার হেফাজতে রেখে দেন।

উক্ত মামলায় ইয়াবার সন্ধানদাতা তার মক্কেল মহব্বত হোসেনকেও আসামীভুক্ত করেন। পরবর্তীতে ওসি রবিউল হোসেন মহব্বত হোসেনকে জানান তাকে ৫০ হাজার টাকা উৎকোচ দিলে চুড়ান্ত চার্জশীট থেকে তার নাম বাদ দেওয়া হবে। মিথ্যা মামলা থেকে বাঁচতে মহববত হোসেন ১৪ মে ওসি রবিউল হোসেনের বাসার সামনে উপস্থিত হয়ে ৫০ হাজার টাকা উৎকোচ প্রদান করেন। কিন্তু টাকা গ্রহনের পরেও ওসি রবিউল হোসেন চার্জশীটে তাকে আসামীভুক্ত করেন। তিনি মামলায় আরো অভিযোগ করেন রবিউল হোসেন স্থানীয় মাদক ব্যবসায়িদের কাছ থেকে উৎকোচ নিয়ে মাদক ব্যবসা পরিচালনায় সহযোগি করে আসছেন। এতে যুব সমাজ ধ্বংস হচ্ছে এবং রাষ্ট্রের চরম ক্ষতি হচ্ছে।

অ্যাড. গোলাম নবী বলেন, উল্লেখিত ঘটনা উল্লেখ করে তার বাদী ২৫ জুলাই দন্ডবিধি১৬১ ধারাতৎসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারায় আদালতে মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলে নির্দেশ দিয়েছেন।

শালিখা থানার ওসি রবিউল হোসেন বলেন, ইয়াবা উদ্ধারের দিন যে অভিযান পরিচালিত হয় সে অভিযানে তিনি ছিলেন না। তাছাড়া মহব্বত একজন মাদক ব্যবসায়ি। তার নামে থানায় ৮টি মাদকের মামলা আছে। এই মামলা হাত থেকে বাঁচতে সে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা করেছে।

(ডিসি/এসপি/জুলাই ২৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test