E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বখাটেদের হুমকিতে শিক্ষাজীবন নিয়ে উদ্বিগ্ন ৭ম শ্রেণির ছাত্রী

২০১৮ আগস্ট ০৮ ১৬:১৩:৪৪
বখাটেদের হুমকিতে শিক্ষাজীবন নিয়ে উদ্বিগ্ন ৭ম শ্রেণির ছাত্রী

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর কলাপাড়ার বেতমোর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী মহিমার শিক্ষাজীবন চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে। স্কুলে আসা যাওয়ার পথে বখাটেদের অব্যাহত অপহরণের হুমকিতে ভীতসন্ত্রস্থ্য হয়ে পড়েছে এ স্কুল ছাত্রী ও তার পরিবার। সন্ত্রাসীদের ভয়ে বাবা-মায়ের সাথে তাকে স্কুলে আসা যাওয়া করতে হচ্ছে। স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছেও এ ছাত্রীর অভিভাবকরা নিরাপত্তার দাবিতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। কিন্তু তারা কোন উদ্যোগ না নেয়ায় এ ছাত্রীর লেখাপড়া এখন বন্ধের পথে।

জানাযায়, এ বছরের ১৪ জুন দুপুরে স্কুল থেকে বাসায় ফেরার পথে মহিমাকে অপহরনের চেষ্টা চালায় একদল বখাটে। প্রকাশ্যে স্কুল ছাত্রীকে টানাহেচড়া ও শ্লীলতাহানির চেষ্টার সময় তার ডাকচিৎকারে তার বাবা মাসুদ মৃধাসহ স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। এ সময় বখাটেরা মাসুদ মৃধাকে কুপিয়ে জখম করে। এ ঘটনায় ২৫ জুন পটুয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করে মাসুদ মৃধা। এ মামলায় এখন জেলহাজতে রয়েছে বখাটে রহিম মাতুব্বর, জামাল মাতুব্বর ও নয়ন ফকির।

স্কুল ছাত্রীর পিতা মাসুদ মৃধা বলেন, এ মামলা দায়েরে পর থেকে প্রতিনিয়ত অপহরন ও এসিডে ঝলসে দেয়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে মহিমাকে। মামলা তুলে না নিলে গ্রাম ছাড়া করার হুমকিতে দিচ্ছে আসামীদের স্বজনরা। একারনে মহিমাসহ অপর দুই মেয়ে নিয়ে এখন চরম নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছেন। ঘটনার আগেও প্রায়ই স্কুলে আসা যাওয়ার পথে আসামীরা মহিমাকে কুপ্রস্তাব দিতো বলে জানান। তিনি বলেন, এ অনৈনিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করায় তার উপরও হামলা হয়েছে। মহিমার শিক্ষা জীবন রক্ষায় বিদ্যালয়ে আবেদন করেছেন। কিন্তু শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটি কোন উদ্যোগ নেয় নি।

মহিমা জানায়, স্কুলে যেতে ভয় করে। রাস্তায় হাটলেই বখাটেরা বাজে কথা বলে। তুলে নিতে চায়। এজন্য এখন বাবাও মা স্কুলে নিয়ে গেলে যাই, নয়তো ঘরেই থাকি। সেদিন (১৪ জুন) তার উপর যে হামলা হয়েছে সেই আতংক এখনও কাটেনি তার।

দরিদ্র কৃষক পরিবারের মেধাবী স্কুল ছাত্রীর স্কুল আসা যাওয়ার পথে সন্ত্রাসীদের অব্য্হাত হুমকিতে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে বেতমোর গ্রামের অভিভাবকরা। গ্রামের ১০৬ অভিভাবক এ সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শান্তির দাবিতে কলাপাড়া প্রেসক্লাবে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

বেতমোর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোতালেব সিকদার জানান, তারা মহিমার পিতার অভিযোগ পত্র পেয়েছেন। কিন্তু ম্যানেজিং কমিটির সভা করতে না পারায় এ অভিযোগটি উপস্থাপন করতে পারেন নি।

কলাপাড়া থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, স্কুল ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়নি। অভিযোগ পেলে ছাত্রীর নিরাপত্তার সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(এমকেআর/এসপি/আগস্ট ০৮, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test