E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বীরগঞ্জে একজনকে হত্যার পর হত্যাকারীকে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা

২০১৮ আগস্ট ০৯ ১৫:০৯:৫৯
বীরগঞ্জে একজনকে হত্যার পর হত্যাকারীকে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর : দিনাজপুরের বীরগঞ্জে সুরুজ মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার জেরে বিক্ষুদ্ধ জনতা হত্যাকারী রবিউল ইসলামকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। এ সময় ররিউলের বাড়িতেও আগুন লাগিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ জনতা। সুরুজ মিয়াকে হত্যার সময় শরিফ শহিদ (৪২) নামে একজন নৈশ্য প্রহরি এবং তার শিশু পুত্র একরামুল হক শামিমকে কুপিয়ে আহত করেছে রবিউল। নিহত সুরুজ মিয়া বীরগঞ্জ জগদল হাটপুকুর জেলগেট এলাকার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে। আর বিক্ষুদ্ধ জনতার হাতে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যার শিকার রবিউল ইসলাম একই এলাকার তারা মিয়ার ছেলে।

সুরুজ মিয়াকে হত্যার ঘটনাটি ঘটেছে, আজ বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টায় শালবাগান জেলখানা গেট নামক এলাকায় এলাকায়। আর হত্যাকারী রবিউলকে বিক্ষুদ্ধ জনতা পুড়িয়ে হত্যা করেছে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায়। হত্যাকান্ডের ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ জনতা সকাল ৯টা পর্যন্ত দিনাজপুর পঞ্চগড় মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন,বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকিলা পারভীন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানিয়েছেন, ভোরে স্থানীয় মসজিদে ফজরের নামাজ পড়ে বাড়ী ফেরার সময় প্রথমে হামলার শিকার হন বীরগঞ্জের জগদল ডাঙ্গাপাড়ার গ্রামের বাসিন্দা ভ্যান চালক সুরজ মিয়া। ঘটনাস্থলে প্রান হারান তিনি।

এ ঘটনার পর পরেই একই এলাকার একটি মুরগী ফার্মের নৈশ্য প্রহরি শহিদ এবং ৩ বছর বয়সি শিশু পুত্র একরামূল হক শামিমকে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম। হত্যাকান্ডের খবর পেয়ে বিক্ষুদ্ধ জনতা গাছ ফেলে এবং আগুন জ্বালিয়ে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কে অবরোধ করে রাখে। এর মধ্যে সকাল ৮টার দিকে পলাতক (ঘাতক) রবিউল ইসলামকে কবিরাজহাট এলাকায় আটক করে ঘটনাস্থলে ধরে এনে পিটিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা করেছে বিক্ষুদ্ধ জনতা। এলাকা নিরাপদ হয়েছে দাবি করে এসময় অনেককে উল্লাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

সকাল ৯টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। দমকলকর্মীদের সহায়তায় আগুন নিভিয়ে রবিউলের পুড়ন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রায় ৩ ঘন্টা পর সকাল ৯টায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

অপরদিকে ঘাতক রবিউল ইসলামের বসতবাড়ী গুড়িয়ে দিয়েছে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসি। এসময় বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে রক্ষা পিয়েছে তার পিতামাতাসহ স্বজনরা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম সাম্প্রতিক সময়ে সুরজ মিয়ার ভাতিজা চা দোকানদার বসির উদ্দিনকেও কুপিয়ে হত্যা করেছে। এছাড়াও আরো কয়েক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে সে।

(এসএএস/এসপি/আগস্ট ০৯, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test