E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

ফরিদপুরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার উদ্বোধন

২০১৮ আগস্ট ১৩ ১৮:৩০:৫৮
ফরিদপুরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার উদ্বোধন

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি : পাবনার ফরিদপুর উপজেলার সোমবার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার’ উদ্বোধন ও ‘স্মৃতির পাতায় একাত্তুর, মুক্তিযুদ্ধে ফরিদপুর’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পাবনা জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন।

এ উপলক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তোফায়েল হোসেনের সভাপতিত্বে এক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান সরকার। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন পারভীন মুক্তি, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুনজুর মোর্শেদ সেলিম, প্রধান শিক্ষক আবু বকার সিদ্দীক, প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল হাফিজ, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আলী আশরাফুল কবির ও ছাত্রলীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম মুরাদ।

উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক উপজেলার ১৩১টি স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও কিন্ডারগার্টেন স্কুলে ‘মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার’ প্রতিষ্ঠার জন্য ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে ৭১’র মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত সময়ের ঐতিহাসিক ঘটনাবলীর ধারাবাহিক সচিত্র বর্ণনাসহ একটি বিল বোর্ড এবং বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীসহ মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ৮টি বই প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া উপজেলার ৪৫ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বহস্তে লেখা স্মৃতিগাঁথা ‘স্মৃতির পাতায় একাত্তুর, মুক্তিযুদ্ধে ফরিদপুর’ বইও প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রদান করা হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, অধ্যক্ষ ও সুপারগণ এবং উপজেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে ফরিদপুর উপজেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শতভাগ শহীদ মিনার নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশের মধ্যে প্রথম দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে এবং প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা আয়োজনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক জ্ঞান চর্চা অব্যাহত রাখা হয়েছে।

প্রধান অতিথি পাবনা জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারের বিল বোর্ডটি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় স্থাপন, ছাত্র-ছাত্রীদের পর্যায়ক্রমে পড়তে দেয়া এবং মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে অনুধাবন করতে সহায়তা করবেন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামে এলাকার রাস্তা গুলোর নাম করণ করবেন।
অনুষ্ঠান শেষে উপজেলার বনওয়ারীনগর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সততা স্টোরও তিনি উদ্বোধন করেন ।

উদ্বোধনের সময় তিনি সৎ থাকার শপথ নেন এবং উপস্থিত ব্যক্তিবর্গ ও ছাত্র-ছাত্রীদের শপথ বাক্য পাঠ করান। এসময় অন্যান্যদের সাথে পাবনা দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক শেখ গোলাম মাওলা, প্রধান শিক্ষক আলগীর হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

(এসএইচএম/এসপি/আগস্ট ১৩, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২১ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test