E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বড়াইগ্রামে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শোক দিবসে উপজেলা চেয়ারম্যানের পৃথক কর্মসূচি!

২০১৮ আগস্ট ১৫ ১৮:০৩:৫১
বড়াইগ্রামে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শোক দিবসে উপজেলা চেয়ারম্যানের পৃথক কর্মসূচি!

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আ.লীগের স্বাস্থ্য-জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী স্থানীয় সংসদ সদস্যের সাথে রাজনৈতিক বিরোধের সূত্র ধরে সম্ভাব্য অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শোক দিবসে পৃথক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

তিনি নিজ উদ্যোগে সকাল ৮টায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, শোক র‌্যালী, বঙ্গবন্ধুর ছবি ও ম্যূরালে পুষ্প মাল্য ও স্তবক প্রদান, আলোচনা সভা ও ম্যূরালে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের আয়োজন করে।

অপরদিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস যথাযথভাবে উপজেলা প্রশাসনের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ম্যূরালে পুস্পস্তবক অর্পণ, শোক রালি, আলোচনা সভায় অংশ নেয়। তবে আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠন এর নেতা-কর্মীরা উভয় অংশে স্ব স্ব অনুসারীদের সাথে শোক দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারমান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী জানান, স্থানীয় আওয়ামীলীগ তৃণমূলের নেতা-কর্মী ও সাধারণ জনগণের দাবির প্রেক্ষিতে তিনি আগামী জাতীয় নির্বাচনে নাটোর-৪ আসন থেকে
সংসদ সদস্য হিসেবে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন। আর তারই লক্ষে নেতা-কর্মীরা ‘আগামী নির্বাচনে ডা. সিদ্দিকুরকে এমপি হিসেবে দেখতে চাই’ লেখা সম্বলিত ব্যানার-ফেস্টুন বিভিন্ন ইউনিয়নের হাট-বাজারে টানিয়েছেন এবং পাশাপাশি ফেসবুকে ব্যাপকভাবে প্রচার করছে। মূলতঃ তার এই জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে এমপি কুদ্দুস তার অনুসারীদের দিয়ে ব্যানার-ফেস্টুন ছিড়ে ও ভেঙ্গে ফেলছেন।

গত ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের অনুষ্ঠানে এমপি আব্দুল কুদ্দুসের অনুসারী কয়েক যুবক তার ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে। বড়াইগ্রামের রয়না ভরাট এলাকায় ভেঙ্গে ফেলা ফেস্টুন দেখতে গেলে এমপির সন্ত্রাসী বাহিনী তাকে হত্যারও চেষ্টা করেছে। এবারের শোক দিবসেও এ রকম অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে ঘটাতে না পারে তার জন্য পৃথক কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপি জানান, ডা. সিদ্দিকুরের অভিযোগ অবান্তর। স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা কেউ তার সাথে নেই। যারা রয়েছে তারা হাইব্রীড। তার সুবিধা নিতে অন্য দল থেকে আওয়ামীলীগে যোগ দিয়েছেন। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে জাতীয় শোক দিবসে তার নাম অনুষ্ঠানের ব্যানারে ছিলো। কিন্তু তিনি না এসে হীনমানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বুধবার সকাল ১০টায় বনপাড়াস্থ বাইপাস মোড়ে বঙ্গবন্ধুর মূর‌্যালে সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস ও পরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারমান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে পৃথক দুইটি শোক র‌্যালী
প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

(এসবি/এসপি/আগস্ট ১৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test