E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

সার-কীটনাশক-বীজের মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ ঈশ্বরদীর কৃষকদের 

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৩ ১৫:৩৭:৫৭
সার-কীটনাশক-বীজের মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ ঈশ্বরদীর কৃষকদের 

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি : পাবনার জেলা প্রশাসকের সাথে ঈশ্বরদীর কৃষকদের মতবিনিময় সভায় কৃষকরা সার-কীটনাশক-বীজের মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ করেছেন। ঈশ্বরদীর জাতীয় পদক প্রাপ্ত ও স্থানীয় কৃষকদের সাথে পাবনার জেলা জেলা প্রশাসক মোঃ জসিম উদ্দীন এর এই মতবিনিময় শনিবার অরোণকোলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। মওলা কৃষি খামারে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় স্থানটি উৎপাদিত সবজি ও ফলমূল দিয়ে মনোমুগ্ধকর পরিবেশে সাজানো  হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটি ঈশ্বরদী উপজেলা সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর আবুল হাসেম।

কৃষকরা অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব। এই সরকারের আমলে কৃষককে সারের জন্য গুলি খেয়ে মরতে হয়নি। কিন্তু রাসায়নিক সারের মূল্য সরকার কর্তৃক নির্ধারণের পরও ব্যবসায়িরা বস্তা প্রতি ২০০-৫০০ টাকা বেশি নিচ্ছেন। সরকারের নির্ধারিত মূল্য পাবনা জেলার ডিলাররা মানছেন না। ভেজাল কীটনাশকে ছেয়ে গেছে এলাকা। চড়া মূল্যে ভেজাল কীটনাশক কিনে তা ব্যবহার করে কৃষকরা পদে পদে প্রতারিত হচ্ছে। কীটনাশকের প্যাকেটে যেসব উপাদানের কথা উল্লেখ থাকে মূলত সেসব উপাদানে ঘাটতি থাকায় কোন উপকার হয় না। ফসলের মাঠ হতে ভ্যান, ভটভটিও স্থানীয় পরিবহনে কৃষি পণ্য হাটে নিতে পুলিশ বাধা সৃষ্টি করছে। কাঁচা মালের ট্রাক হতে পুলিশ প্রকাশ্যে নিয়মিত চাঁদা আদায় করছেন।

কৃষকরা আরো বলেন, মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ফসল উৎপাদন করি। কিন্তু সেই ফসল হাট-বাজারে বিক্রি করতে গেলে ন্যায্য মূল্য পাওয়া যায় না। মধ্যস্বত্তভোগীদের হতে জিম্মি। এখন উৎপাদিত সকল পণ্যেই লোকসান হচ্ছে। এরপরও হাট-বাজারে কৃষিপণ্য বিক্রি করতে গেলে খাজনার নামে ইজারাদারের লোকেরা খাজনার নামে হাতিয়ে নিচ্ছেন অতিরিক্ত টাকা। কৃষি পণ্য বিক্রিতে কৃষকের নিকট হতে খাজনা নেয়ার ব্যাপারে সরকারের নিষেধ থাকলেও ইজারাদারের লোকেরা বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ইচ্ছে মতো অধিক মাত্রায় খাজনা আদায় করছেন।

অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আল-মামুন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকতা হাসান ইমাম ও প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন কুমার কুন্ডু।

সোসাইটির কেন্দ্রিয় সাধারন সম্পাদক আব্দুল জলিল কিতাব মন্ডল সঞ্চালনায় কৃষকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটি কেন্দ্রিয় সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত কৃষক ছিদ্দিকুর রহমান কূল ময়েজ, জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত কৃষক জাহিদুল ইসলাম গাজর জাহিদ, বেলী বেগম, হাবিবুর রহমান মৎস্য হাবিব, আলহাজ্ব রবিউল ইসলাম, পদক প্রাপ্ত কৃষক আশরাফ আলী খান ডুবুরী, সিআইজি ঈশ্বরদী উপজেলা সভাপতি মুরাদ মালিথা, কৃষক রেজাউল ইসলাম, মৎস্য চাষি আবু তালেব জোয়াদ্দার, কবির মালিথা, শিল্পী বেগম, আজগর মল্লিক, হাবিবুর রহমান, আব্দুস সাত্তার, তোরাব জোয়াদ্দার, মহসিন আলী ও সাইদার হোসেন বাবুসহ ঈশ্বরদীর বিভিন্ন স্তরের কৃষকেরা।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে তিন শতাধিক কৃষক উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা, কৃষি বীমা ও কৃষি হিমাগারেরও প্রতিষ্ঠার জোর দাবি জানিয়েছেন।

(এসকেকে/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৮ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test