E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

তাড়াশে রঘুনিলী মঙ্গলবাড়ীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কর্ম বিরতি

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৪ ১৫:১৪:৩৪
তাড়াশে রঘুনিলী মঙ্গলবাড়ীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কর্ম বিরতি

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জের তাড়াশে রঘুনিলী মঙ্গলবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতাসহ নান অনিয়মের অভিযোগ এনে কর্ম বিরতি শুরু করেছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। মঙ্গলবার থেকে পাঠদান কার্যক্রম বিরত রেখেছেন তারা। এদিকে শিক্ষক-কর্মচারীদের কর্ম বিরতির কারণে চরম বিপাকে পড়েছেন বিদ্যালয়টির সারে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী।

শিক্ষক-কর্মচারীদের অভিযোগ, প্রধান শিক্ষক রবি উজ্জামান নান্নু ক্ষমতার অপব্যবহার করে কোরবানীর ঈদের বেতন বোনাসের বিল ব্যাংকে জমা না দিয়ে বেতন বোনাস থেকে বঞ্চিত করেন ১৬ জন শিক্ষক কর্মচারীকে। বেতন বোনাস না পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা।

অভিযোগ রয়েছে, প্রধান শিক্ষক ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিদ্যালয়টি পারিবারিক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছেন। তার পিতা আবুল কাসেমকে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নিযুক্ত করেছেন। তার স্ত্রী হেলেনা খাতুনকে নিয়ম বিহর্ভূতভাবে নিয়োগ দিয়ে শিক্ষক প্রতিনিধি বানিয়েছেন। এছাড়াও তার চাচাত ভাই আমির হোসেন বাবলু এবং তার স্ত্রীকেও ক্ষমতা বলে শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন।

তারা আরও জানান, বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর থেকে ক্ষমতার দাপটে তিনি বিদ্যালয়ের বিভিন্ন তহবিলের অর্থ আত্মসাত করে আসছেন। এসবের প্রতিবাদ করলে তিনি অন্যায়ভাবে শিক্ষদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে হয়রানী করে থাকেন। বিক্ষুব্ধ হয়ে পুর্বেও শিক্ষক কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগসহ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রানিম সরকার, আব্দুল বারিক, সুজন মাহমুদ, সিমা খাতুন, নুসরাত জাহানসহ অনেকে জানান, প্রধান শিক্ষকের কারণে শিক্ষক কর্মচারীরা বেতন ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়ে কর্ম বিরাত পালন করছেন। এতে তাদের পাঠদানে চরম বিঘœ ঘটছে। শিগগিরই বিষটি সমাধান না হলে আসন্ন জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল খারাপ হয়ে তাদের শিক্ষা জীবন নষ্ট হয়ে যাবে।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক রবি উজ্জামান নান্নু বলেন, হাজিরা খাতায় শিক্ষক কর্মচারীদের স্বাক্ষর নেই। নিয়মানুযায়ী তাদের বেতন বোনাস বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শফি উল্লাহ বলেন, ইতিমধ্যে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফকির জাকির হোসেনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি বুধবার বিষয়টি সমাধানের জন্য উভয় পক্ষ নিয়ে আলোচনায় বসবেন।

(এমএসএম/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৩ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test