E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মাদারীপুরে ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৭ ১৮:০৪:৪৫
মাদারীপুরে ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা

মাদারীপুর প্রতিনিধি : হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে মাদারীপুরে হয়ে গেল কলাগাছ দিয়ে তৈরী ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা। হাজার হাজার দর্শনার্থী প্রথমবারের মত আনন্দ উল্লাসে উপভোগ করলেন অভিনব এই ভেলা বাইচ। 

আয়োজকরা জানায়, প্রাচীনকাল থেকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মনসা পূজা, বিশ্বকর্মা পূজা,বিজয়া দশমী, লক্ষ্মী পূজা, কালি পূজাসহ বিভিন্ন তিথি অনুযায়ী মাদারীপুরের বিভিন্ন স্থানে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের আয়োজন কওে আসছেন এলাকাবাসী।

এ বছর বর্ষায় পর্যাপ্ত পানি না হওয়ায় নৌকা বাইচের আয়োজন করতে পারছেনা আয়োজকরা। কালের বিবর্তনে নৌকা বাইচ নিয়ে নৌপথে প্রতিযোগিতা অনেকটাই হারিয়ে যেতে বসেছে। এক সময় সারা বাংলায় জনপ্রিয় ছিল নৌকা বাইচ। সেই নৌকা বাইচের ধারাবাহিকতা মানুষের মাঝে তুলে ধরতে ও শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে মানুষের মনে আনন্দ উদ্দীপনা জাগ্রত করে তুলতে এই ব্যতিক্রমী আয়োজন করা হয়।

কলাগাছ দিয়ে ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতায় ৬ ভাগে ৫৩ দল অংশ নেয়।পরে ফাইনাল রাউন্ডে চৌরাশী গ্রামের কার্তিক বৈদ্যের ভেলা প্রথম হয়।এছাড়াও উপজেলার আমগ্রাম থেকে আসা কৃষ্ণ করাতির ভেলা হয় দ্বিতীয় এবং তৃতীয় হয় চৌরাশী গ্রামের জগদীশ ভক্তের ভেলা। প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বাজিতপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজৈর ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক সাংবাদিক নিত্যানন্দ হালদার, আওয়ামীলীগ নেতা নিত্যানন্দ বিশ্বাস, চেয়াম্যানের সহধর্মিনী তৃষা হাওলাদার প্রমুখ।

রাজৈর উপজেলা থেকে আসা মঞ্জু রানী বিশ্বাস বলেন, ‘ভেলা বাইচের এই আয়োজন দেখে আমি মুগ্ধ।আমি পরিবার পরিজন নিয়ে এই ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা দেখতে এসেছি। আগামীতেও এমন আয়োজন হলে আমি আসবো। তবে এ ধরণের আয়োজন আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে।’

স্থানীয় যুব সমাজের আহবায়ক ও ভেলা বাইচের উদ্যোক্তা প্রশান্ত মন্ডল বলেন, নৌকা বাইচের ধারাবাহিকতায় মানুষের মাঝে তুলে ধরতে ও শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে মানুষের মনে আনন্দ উদ্দীপনা জাগ্রত করতে আমরা এই ভেলা বাইচের আয়োজন করেছি। সকলের সহযোগিতা পেলে আগামীতেও এই ভেলা বাইচের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই।

বাজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার জানান, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মনসা পূজা, বিশ্বকর্মা পূজা, বিজয়া দশমী, লক্ষ্মী পূজা, কালি পূজাসহ বিভিন্ন তিথি অনুযায়ী মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার বাজিতপুরের বিভিন্ন স্থানে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এ বছর বর্ষায় পর্যাপ্ত পানি না হওয়ায় নৌকা বাইচের আয়োজন করতে না পারায় আনন্দ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে জনগন। তাই জনগণকে আনন্দ দেবার জন্য হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে এ ভেলা বাইচের আয়োজন করা হয়।

(এমআরএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test