E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

সাতক্ষীরায় ইউপি চেয়ারম্যান হত্যায় ১৯ জনের নামে মামলা, গ্রেফতার ২

২০১৮ সেপ্টেম্বর ১০ ১৫:৩০:৩৩
সাতক্ষীরায় ইউপি চেয়ারম্যান হত্যায় ১৯ জনের নামে মামলা, গ্রেফতার ২

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : জাতীয় পার্টির সাতক্ষীরা জেলা শাখার সহ সাংগঠনিক সম্পাদক  ও  কালিগঞ্জ  উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউপি চেয়ারম্যান কেএম মোশাররফ হোসেন হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার রাতে নিহতের মেয়ে সাফিয়া আক্তার বাদি হয়ে কৃষ্ণনগর ইউপির তনং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল জলিলসহ ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে এ মামলা দায়ের করেন। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকা সন্দেহে পুলিশ দু’জনকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের চিত্তরঞ্জন ঘোষের ছেলে ইটভাটার শ্রমিক সরদার মণ্টু ঘোষ(৩৫) ও বেনাদনা গ্রামের মোক্তার বিশ্বাসের ছেলে মোজাফফর বিশ্বাস (৪০) ।

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসান হাফিজুর রহমান জানান, শনিবার রাতে কৃষ্ণনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার ঘটনায় রোববার রাতে নিহতের বড় মেয়ে শ্যামনগর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের সুফিয়া খাতুন বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা(০৬ নং) দায়ের করেছেন। মামলায় জলিল মেম্বরসহ ১৯জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) রাজীব হোসেন রোববার রাতে মন্টু ঘোষ ও মোজাফফর বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছেন। তাদেরকে সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে। একইসাথে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমাণ্ড আবেদন জানানো হবে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে। এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মুক্তিযুদ্ধের আগে মোশাররফ হোসেনের বাবা ছৈলদ্দিন কাগুচি এলাকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানুষকে পাকিস্তানি সেনা, আল বদর ও রাজাকারদের হাতে তুলে দিয়েছেন। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নারীদের ওইসব বাহিনীর হাতে তুলে দিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করিয়েছেন। নাড়–গোপাল অধিকারীর পুকুর ও বাড়িসহ প্রায় চার বিঘা জমি জাল দলিল করে তাকে গ্রাম থেকে বিতাড়িত করেন ছৈলদ্দিন।

একপর্যায়ে নাড়–গোপাল অধিকারী স্বপরিবারের সাতক্ষীরা শহরের কাটিয়া আনন্দপাড়ায় সন্তোষ অধিকারির বাড়িতে ভাড়া থেকে রিক্সা চালাতেন। পরে তারা ভারতের উত্তর প্রদেশের নৈনিতালে চলে যান। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর মুক্তিযোদ্ধারা রঘুনাথপুর গ্রামের দরমান সরদারের আম বাগানে ছৈলদ্দিনকে গুলি করে হত্যা করে। তারই ছেলে মোশাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে দু’টি ডাকাতি, ফতেপুরে সহিংসতার ঘটনায় দু’টি মামলাসহ কমপক্ষে ছয়টি মামলা চলমান রয়েছে।

সাপমারা খালের দখল নিয়ে গোপালগঞ্জের দিঘলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ওবায়দুর রহমান ভুইয়া, কৃষ্ণনগর ইউপি সদস্য জলিল ডাকাত, এশার ডাকাত, বাহার ডাকাত, রেজাউল ইসলাম, মহসিন ডাকাতসহ একটি গ্রুপের সঙ্গে তার বিরোধ চলে আসছিল। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে ডিবি পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দিয়ে তাদের ছাড়ানোর নামে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ছাড়াও অন্যের জমি জবরদখলের অভিযোগ রয়েছে।

তার বিরুদ্ধে ২০১২ সালে ফতেপুর ও চাকদাহে সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিয়ে ১২টি সংখ্যালঘুর ঘরবাড়িসহ ১৫টি পরিবারের ঘরবাড়ি , দু’টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, একটি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ও একটি ব্যবআ প্রতিস্ঠান লুটপাট, ভাঙচুর ও লুটপাট শেষে অগ্নিসংযোগের নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। শনিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন যুবলীগ অফিসে বসে থাকাকালিন দুর্বৃত্তরা তাকে উপর্যুপরি কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে।

(আরকে/এসপি/সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test