E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

প্রযুুক্তির অপব্যবহার করে স্কুলছাত্রীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে : ছাত্রীর স্কুলে যাওয়া বন্ধ

২০১৮ সেপ্টেম্বর ১৪ ১৭:২৪:০৩
প্রযুুক্তির অপব্যবহার করে স্কুলছাত্রীর নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে : ছাত্রীর স্কুলে যাওয়া বন্ধ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, বরিশাল : বরিশালের আগৈলঝাড়ায় মোহনকাঠী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ্যান্ড কলেজের এসএসসি পরীক্ষার্থী স্কুল ছাত্রীর ছবি তুলে প্রযুুক্তির অপব্যবহার করে ওই স্কুল ছাত্রীর মাথা কেটে নগ্ন করে বিভিন্ন মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে সহপাঠী এক ছাত্রের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর থেকে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে ওই ছাত্রী। 

লোকলজ্জার ভয়ে ও অঘটনের আশংকায় পরিবার সদস্যরা ছাত্রীকে নজরদারির মধ্যে রাখলেও প্রশাসনকে না জানিয়ে রফা দফা করতে প্রতিষ্ঠান প্রধান, ইউপি সদস্য ও স্থানীয় প্রভাবশালীদের দফায় দফায় চলছে শালিশ বৈঠক।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের মোহনকাঠী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ্যান্ড কলেজের এসএসসি পরীক্ষার্থী (১৬)র মোবাইল ফোনে ছবি তোলে তার সহপাঠি থানেশ্বরকাঠী গ্রামের উত্তম জয়ধরের ছেলে অভিষেক জয়ধর (১৭)। প্রযুুক্তির অপব্যবহার করে ওই স্কুল ছাত্রীর ছবির মাথা কেটে নগ্ন করে ছবি বানিয়ে সেই ছবি বন্ধুদের মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় অভিষেক।

সম্প্রতি ঘটনা জানাজানি হলে ওই স্কুল ছাত্রী মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ে লোক লজ্জায় স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। অঘটনের আশংকায় তাকে চোখে চোখে রাখছেন ছাত্রীর পরিবার সদস্যরা।

অভিযুক্ত ছাত্রর পরিবার প্রভাবশালি হওয়ায় প্রশাসনকে না জানিয়ে রফাদফা করতে ময়িয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। একারণে ১৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই কলেজের সভাপতি শাহীন আলম টেনু সন্যামতের নেতৃত্বে অধ্যক্ষ ফকরুর ইসলামের উপস্থিতিতে তার কক্ষে শালিশ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ফরহাদ তালুকদার, নাসির তালুকদার, স্থানীয় আশ্রাফ মীর, জালাল ভুইয়া, রেমন ভূইয়া, ৫নং ওয়ার্ড সদস্য শফিকুল ইসলাম ওরফে অপু মৃধাসহ স্থানীয় প্রভাবশারীরা।

নাম না প্রকাশের শর্তে ওই সালিশ বৈঠকে উপস্থিত একাধিক শালিশ জানান, ঘটনা সত্য। অভিযুক্ত অভিষেক জয়ধর সকলের উপস্থিতিতে জানিয়েছে, স্কুল ছাত্রীর ছবির মাথা কেটে প্রযুক্তির অপব্যবহার করে নগ্ন ছবি তৈরি করে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনার সাথে তার আরও তিন বন্ধু জড়িত ছিল। এরা হলো একই এলাকার দুলাল হাওলাদারের ছেলে আমিন হাওলাদার, কামঅর হাওলাদারের ছেলে না।মি হাওলাদার ও মন্টু মোল্লার ছেলে ছাব্বির মোল্লা।

অভিযুক্ত ওই তিন জনকে কলেজ কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবারই নোটিশ করে শুক্রবার শালিশ বৈঠকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। তাই বৃহস্পতিবার শালিশ বৈঠকে কোন সমাধান হয়নি।

ভিক্টিম ছাত্রীর ব্যবসায়ি চাচা সাংবাদিকদের কাছে ঘটনার বিচার দাবি করে বলেন, তার ভাতিজির ঘটনায় দোষী ব্যাক্তিদের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রশাসনের কাছে আহ্বান জানান তিনি।

এ ব্যপারে মোহনকাঠী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি শাহীন আলম টেনু সন্যামত সাংবাদিকদের কাছে ফোনে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তারা ঘটনা মিমাংশার জন্য বৃহস্পতিবার বসেছিলেন। শুক্রবার আবারও বসবেন।

আগৈলঝাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকতর্তা আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা জানান, এবিষয়ে থানা পুলিশকে কেউ জানায়নি। ভুক্তভোগী ছাত্রী বা তার পরিবার থেকে অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন তিনি। তার পরেও এবিষয়ে খোঁজ খবর নেবেন বলেও জানান তিনি।

(টিবি/এসপি/সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২০ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test