E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

জাতিসংঘে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার আহবানে প্রধানমন্ত্রীকে মানিকের অভিনন্দন

২০১৮ সেপ্টেম্বর ২৫ ২৩:৩০:৫৫
জাতিসংঘে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার আহবানে প্রধানমন্ত্রীকে মানিকের অভিনন্দন

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা, কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) : সারা বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সদর দপ্তরে আন্তর্জাতিক সব বিরোধ নিষ্পত্তি এবং সন্ত্রাসবাদের মতো ক্রমবর্ধমান বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিশ্ব নেতাদের প্রতি যে আহবান জানিয়েছেন, সে আহবানের জন্য বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সারা বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধা, আইনজীবী ও সাংস্কৃতিক কর্মীদের পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারীদের অন্যতম নেতা ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মো: সাইদুর রহমান মানিক।

মঙ্গলবার এক শুভেচ্ছা বার্তায় নেত্রকোনা-৩ কেন্দুয়া আটপাড়া নির্বাচনী এলাকা থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারী মুক্তিযোদ্ধা মো: সাইদুর রহমান মানিক বলেন সোমবার বিকেলে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত নেলসন ম্যান্ডেলা শান্তি সম্মেলনে বঙ্গবন্ধু কণ্যা শেখ হাসিনা বলেছেন শান্তি এখনও সুদুরপরাহত, ভবিষ্যতে শান্তিপূর্ণ বিশ্ব নিশ্চিত করতে অবশ্যই আন্তর্জাতিক সকল বিরোধ শান্তিপূর্ণ উপায়ে নিশ্চিত করতে হবে এবং বিদ্যমান সকল সংঘাতের অবসান ঘটাতে হবে। তিনি বলেন, দক্ষিন আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী নেতা, রাজনৈতিক নেতা এবং মানবহিতৈষী, বিশ্ব ব্যক্তিত্ব নেলসন ম্যান্ডেলার শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এই শান্তি সম্মেলনে অংশ নিয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার আহবান জানান শেখ হাসিনা।

সন্ত্রাসীদের অর্থায়ন তাদের অস্ত্র সরবরাহের উৎস বন্ধ এবং তাদের আশ্রয়দান বন্ধের মাধ্যমে সন্ত্রাসবাদের মতো ক্রমবর্ধমান বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় অবশ্যই বিশ্ব নেতাদের এগিয়ে আসতে শেখ হাসিনা যে আহবান জানিয়েছেন তা সারা বিশ্বেই প্রশংসার দাবী রাখে। আমাদের জলবায়ুর পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে, অভিযোজন সক্ষমতা অর্জন করতে হবে এবং যে কোন পরিস্থিতিতে মানবাধিকার রক্ষা করতে হবে। শান্তির সংস্কৃতি ও অহিংসতা লালন করতে হবে সকলকে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য সমূহ অর্জনে আমাদের সহযোগিতা জোরদার করতে হবে।

সহনশীলতা বাড়াতে হবে, বৈচিত্রকে ধারন করতে হবে, ধর্মীয় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীকে বৈষম্য শোসন থেকে রক্ষা করতে হবে। সাইদুর রহমান মানিক বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন অংশে বহু মানুষ অনাহার ও অপুষ্টিতে ভূগছে। জাতিগত সংঘাত ভীতি এবং অসহীষ্ণুতা বাড়ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, অনেক সমাজের লোক বৈষম্যের শিকার, ধর্ম ও নৃগোষ্ঠীগত পরিচয়ের কারণে তাদের জোর পূর্বক বাস্তুচ্যূত করা হচ্ছে, নির্যাতন ও গণ হত্যার শিকার হচ্ছে। মিয়ানমারে জাতিগত নিধনের হাত থেকে রক্ষা পেতে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। সাহকিতার সঙ্গে এ আশ্রয় দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার পর থেকেই বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় অঙ্গীকারাবদ্ধ। বাংলাদেশের শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে বিশ্বের অনেক স্থানে মানুষের জীবন রক্ষা করছে। সংঘাত প্রতিরোধ, উন্নয়ন ও মানবাধিকার উন্নয়নের মাধ্যমে বিশ্ব শান্তি বজায় রাখতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সহযোগিতা করতে সর্বদাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অঙ্গীকারাবদ্ধ।

সাইদুর রহমান মানিক আরো বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন শান্তি প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর রূপকল্প আমাদের সবাইকে পথ দেখিয়েছে। দারিদ্র দূরিকরণ জনস্বাস্থ্য ও শিক্ষার ক্ষেত্রে আমাদের বিনিয়োগ দেশের জনগণের কল্যাণ নিশ্চিত ও বৈষম্য হ্রাসে সহায়ক হয়েছে। আমরা উদ্ভাবনী কৌশলের মাধ্যমে উন্নয়নের মধ্য দিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা করে যাচ্ছি।

নেলসন ম্যান্ডেলার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, তার আত্মত্যাগ, উৎসর্গ , মানুষের জন্য সহানুভূতি তাকে মানবতা শান্তি, স্বাধীনতা ও ঐক্যের নেতায় পরিনত করেছে। নেলসন ম্যান্ডেলার মতো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানও আমাদের শোষন নির্যাতন থেকে মুক্তি ও স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। দেশের মানুষের অধিকার আদায়ে সংগ্রাম করতে গিয়ে এই দুই বিশ্ব নেতার জীবনের বড় অংশই কাটিয়েছেন কারাগারে । তিনি উল্লেখ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুকে ১৯৪৮ সাল থেকে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত বার বার কারাগারে পাঠানো হয়েছে। কারাগারে বসেই কয়েকটি বই লিখেছেন তিনি ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদৃতি দিয়ে মানিক বলেন, নেলসন ম্যান্ডেলা রচিত লং ওয়াক টু ফ্রিডমের মতো বঙ্গবন্ধু রচিত অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের ডায়রীতে শান্তি ও দেশের মানুষের জন্য তার সংগ্রামের কথা ওঠে এসেছে। এজন্যই শেখ হাসিনা বলেছেন, আসুন আমরা সকলে একসাথে কাজ করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমে তার আত্মার শান্তি কামনা করি। শেখ হাসিনার এ আহবানে সারা দিয়ে দেশের এবং দলের প্রতিটি নেতাকর্মী ও সমর্থককে নিজেদের ঘর থেকে সমাজে এবং রাষ্ট্রে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য সকলকে আন্তরিকভাবে এগিয়ে আসার আহবান জানান মানিক।

তিনি বলেন, শান্তিই একমাত্র বিশ্ব জয়ের পথ এর কোন বিকল্প নেই। কেননা যারা বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে নিষ্ঠুর ভাবে হত্যা করেছে, যারা ১৯৭১ সনে মানবতা বিরোধী অপরাধে লিপ্ত ছিল তারা নিশ্চয়ই আজ শান্তিতে নেই। তারা পরাহত, সমাজে ঘৃনিত এবং আজীবন পরাজিত। এজন্য সকল হানাহানি প্রতিহিংসা ছেড়ে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার শেখ হাসিনার আহবানে সকলকে সারা দেয়ার অনুরোধ জানান মুক্তিযোদ্ধা মো: সাইদুর রহমান মানিক।

(এসবি/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৭ অক্টোবর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test