E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

আগৈলঝাড়ায় ১৪৪ মন্ডপে দুর্গোৎসব শুরু, নিরাপত্তায় আইন শৃংখলা বাহিনীর ৮০০ সদস্য

২০১৮ অক্টোবর ১৫ ১৫:১৪:২৫
আগৈলঝাড়ায় ১৪৪ মন্ডপে দুর্গোৎসব শুরু, নিরাপত্তায় আইন শৃংখলা বাহিনীর ৮০০ সদস্য

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, বরিশাল : সোমবার ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাঁচ দিন ব্যাপি সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা। পূজায় নিরাপত্তা দিতে তিন স্তরের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুলিশ। পাঁচ দিনের পূজায় আইন শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিভিন্ন আইন শৃংখলা বাহিনীর প্রায় আট’শ সদস্যকে নিয়োজিত করা হয়েছে।

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আফজাল হোসেন জানান, পূজায় শান্তি শৃংখলা বজায় রেখে নির্বিঘ্নে পূজা সম্পন্ন করতে সোমবার দুপুরে জেলা পুলিশ থেকে আসা ১শ ৬১জন কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্য ও ৬শ ৩১জন আনসার সদস্যদের সাথে থানা চত্তরে মতবিনিময় করেছেন তিনি।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাস, ওসি (তদন্ত) নকিব আকরাম হোসেন, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও বাকাল ইউপি চেয়ারম্যান বিপুল দাস, নিরাপত্তার দ্বায়িত্বে থাকা থানা পুলিশের উপ-পুলিশ পরিদর্শকগন উপস্থিত ছিলেন।

এসময় ওসি আইন শৃংখলা বাহিনীর সকল সদস্যদের যে কোন ধরনের বিশৃংখলা ও নাশকতাকারীদের কঠোর হস্তে দমনের নির্দেশ প্রদান করেন। সোমবার বিকেল থেকে প্রতীমা বিসর্জন করা পর্যন্ত আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা মন্দিরসহ আশপাশের এলাকায় সার্বিক নিরাপত্তা প্রদান করবে বলেও জানান তিনি।

সূত্র মতে, উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে শুরু হওয়া শারদীয় দুর্গোৎবে ১শ ৪৪টি পূজা মন্ডপকে নিরাপত্তা প্রদানের স্বার্থে একাধিক ক্যাটাগরীতে ভাগ করা হয়েছে। নিরাপত্তা প্রদানের জন্য ৫৫টি পূজা মণ্ডপকে অধিক গুরুত্বপূর্র্ণ ও ৬০টি পূজামণ্ডপকে কম গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে ইতোমধ্যেই চিহ্নিত করা হয়েছে। অধিক গুরুত্বপূর্ণ পূজা মণ্ডপগুলোর মধ্যে রাজিহার ইউনিয়নে ১৫টি, বাকাল ইউনিয়নে ১৪টি, বাগধা ইউনিয়নে ৯টি, গৈলা ইউনিয়নে ৯টি ও রত্নপুর ইউনিয়নে ৮টি পূজা মণ্ডপ রয়েছে। প্রতি মন্ডপে একজন পুলিশ কর্মকর্তার অধীনে চার জন করে মহিলা ও পুরুষ আনসার সদস্য নিয়োজিত থাকবে। অধিক গুরুত্বপূর্ণ চিহ্নিত ৫৫টি মন্দিরে আরও অতিরিক্ত এক থেকে দুই জন করে পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।

ওসি আফজাল আরও জানান, পূজায় ভক্ত ও দর্শনার্থীদের যাতায়াতের পথে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে পুলিশের মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্সসহ সাদা পোশাকের পুলিশ সদস্যরা।

পূজার পাঁচ দিন নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে উপজেলার পূজা মন্ডপগুলো। যে কোন অপ্রিতীকর ঘটনা এড়াতে প্রস্তুত রাখা হয়েছে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের।

(টিবি/এসপি/অক্টোবর ১৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৩ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test