E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মাদারীপুরে শিশু-কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ

২০১৮ নভেম্বর ১৩ ১৭:৪৪:৪৬
মাদারীপুরে শিশু-কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি : মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় একজন প্রতিবন্ধী কিশোরী ও সদর উপজেলায় একজন শিশু পৃথক ঘটনায় ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে পারিবারিকভাবে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মাদারীপুর কালকিনি উপজেলার সস্তাল গ্রামে সোমবার বিকেলে ১৪ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে বলে পারিবাকিভাবে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে ওই কিশোরীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকেলে কালকিনি উপজেলার সস্তাল গ্রামের আছমত ঘরামীর ছেলে আলমগীর ঘরামী (৩৮) একই গ্রামের প্রতিবন্ধী কিশোরীকে বাড়িতে একা পেয়ে পাশের একটি বাগানে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর ধর্ষণ শেষে পালিয়ে যায় আলমগীর। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুজির পরে রাত রক্তাক্ত অবস্থায় কিশোরীকে বাগান থেকে উদ্ধার করে। পরে মঙ্গলবার সকালে তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) মো. বদরুল আলম মোলøা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতাল ও ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত আলমগীর ঘরামী। তাকে ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে।

এদিকে মাদারীপুর সদর উপজেলার বলাইরচর গ্রামে রবিবার দুপুরে প্রথম শ্রেণীর একজন ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় মাদারীপুর সদর থানায় ঐ স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

পারিবারিক, স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর সদর উপজেলার বলাইচর গ্রামের বলাইরচর গোলাপ খা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী বিদ্যালয় ছুটির পরে বাড়ি ফেরার পথে একই গ্রামের ফারুক সরদারের ছেলে নিরব সরদার (১৯) চকলেটের লোভ দেখিয়ে বিদ্যালয়ের পাশে একটি বাগানের মধ্যে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে ঐ ছাত্রীর মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে নিরব পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন ওই শিশুটিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে। বর্তমানে শিশুটি মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

মঙ্গলবার দুপুরে শিশুটির চাচা অভিযোগ করে বলেন, নিরবের পরিবার এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় আমাদের নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। আমাদের মামলা তুলে নেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করছে। তাই আমরা এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যাতে করে গ্রামের আর কোন মেয়ের সাথে নিরব এমন কাজ করতে না পারে।

মঙ্গলবার দুপুরে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে গেলে শিশুটির মা জানায়, আমার ছোট্ট মেয়ে এখনও ব্যাথায় কষ্ট পাচ্ছে। ভয়ে দিন কাটাচ্ছে। আমার মেয়ের যে ক্ষতি হলো, তা সহজে পূরণ হবার নয়। তাই ধর্ষক নিরবের কঠিন শাস্তি চাই।

এদিকে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত নিরব সরদার পলাতক আছে।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. ইসতিয়াক আহম্মেদ বলেন, অভিযুক্ত নিরবকে ধরতে পুলিশ চেষ্টা করছে। আশা করছি দ্রুত গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।


(এএসএ/এসপি/নভেম্বর ১৮, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১১ ডিসেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test