E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

নওগাঁয় এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

২০১৮ নভেম্বর ১৬ ১৭:৩২:২৩
নওগাঁয় এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুরে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফি বাবদ অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার ভিমপুর ইউনিয়নের হাট চকগৌরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ এনামুল হকের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। এ ছাড়া বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী ফরম ফির সঙ্গে বকেয়া বেতন, কোচিং, মডেল টেস্টের নামে বাড়তি কোন অর্থ আদায় করা যাবে না। বকেয়া বেতন আদায় করতে হলে নির্বাচনী পরীক্ষার আগে করে নিতে হবে। এমন বিধান থাকলেও এই নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। এদিকে অতিরিক্ত টাকা দিতে দরিদ্র পরিবারের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, এসএসসির ফরম পূরণে বিজ্ঞান বিভাগে ১ হাজার ৮শ’ টাকা, ব্যবসা বিভাগে ১ হাজার ৬শ’ ৮০ টাকা এবং মানবিক বিভাগে ১ হাজার ৬শ’ ৮০ টাকা নির্ধারণ করেছে রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।

২০১৭-২০১৮ এবং ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধুলা (কোড ১৪৭) এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা (কোড ১৫৬) বিষয়ের পরীক্ষা ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে সম্পন্ন হবে বলে এ দুই বিষয়ের পরীক্ষার বোর্ড ফি দিতে হবে না। ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষের অনিয়মিত শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে এ দুটি পরীক্ষার ফি দিতে হবে।

ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অভিযোগ, এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণে বোর্ড নির্ধারিত ফি করে দিলেও নিয়ম নীতির তোয়াক্কা হচ্ছে না। প্রধান শিক্ষক মোঃ এনামুল হক বিজ্ঞান বিভাগে শিক্ষার্থী প্রতি ২ হাজার ১শ’ টাকা এবং মানবিক বিভাগে ২ হাজার টাকা আদায় করছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পরীক্ষার্থীর বাবা জানান, বোর্ডের নির্ধারিত ফির বাইরে অতিরিক্ত টাকা আদায় করা যেন ‘মরার ওপর খাঁড়ার ঘাঁ’ হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটি বিদ্যালয়ের এমন কাজ রীতিমতো ডাকাতি বলেও জানান তিনি।

অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ অস্বীকার করে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ এনামুল হক জানান, পরীক্ষা কেন্দ্র ও বোর্ডে যাতায়াতসহ বিভিন্ন খরচ বাবদ নির্ধারিত ফি আদায় করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান জানান, অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(বিএম/এসপি/নভেম্বর ১৬, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১১ ডিসেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test