E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

নেত্রকোনা-৩ 

মানিক ভাই নৌকা পাইলে, নির্বাচন করব সবাই মিলে : তৃণমূলের দাবি

২০১৮ নভেম্বর ২০ ২২:৫১:৩৫
মানিক ভাই নৌকা পাইলে, নির্বাচন করব সবাই মিলে : তৃণমূলের দাবি

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা, কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) : নেত্রকোনা-৩ আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সকল মহলের প্রিয় মুখ ও গহণযোগ্য ব্যক্তি বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মো: সাইদুর রহমান মানিকের জন্য মসজিদে মন্দিরে ও আশ্রম সহ বিভিন্ন ধর্মীয় উপাসনালয়ে চলছে বিশেষ প্রার্থনা।

এর বাইরেও কৃষক শ্রমিক ইমাম পুরহিত ও খেটে খাওয়া সাধারন মানুষেরা তাদের মনের ভাব প্রকাশ করে বলছেন “মানিকভাই নৌকা পাইলে, নির্বাচন করব দশে মিলে। সবার প্রিয় মানিক ভাই, তার জন্য নৌকা চাই।” এরকম আঞ্চলিক বিভিন্ন ভাষায় কেন্দুয়া ও আটপাড়া উপজেলার ২০টি ইউনিয়ন সহ একটি পৌরসভায় তুমুল আলোচনা চলছে। আর যারা এসব আলোচনায় মেতে রয়েছেন তারা একেবারেই আওয়ামীলীগের পদপদবীদারী নেতাদের বাইরে সাধারন ভোটার। তারা বছরের পর বছর ঘুরে আসা প্রতিটি জাতীয় নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়। তারা লালন করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে, প্রাণ দিয়ে ভালবাসেন আওয়ামীলীগ তথা আওয়ামীলীগ ও নৌকার কান্ডারী মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে।

এছাড়া তারা ভালবাসেন প্রাণখুলে যারা এম.পি মন্ত্রী কিংবা উপজেলা চেয়ারম্যান হন তখন এই কৃষক শ্রমিক মানুষের কাছে গিয়ে হাতে হাত মেলান, প্রাণে প্রাণে মিশেন তাতেই তাদের মনের শান্তি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তারা এইরকম একজন মনের মানুষকেই প্রার্থী হিসেবে দেখতে চান। সাজিউড়া গ্রামের কৃষক মঞ্জুরুল হক বলেন, মানিকভাই একজন সহজ সরল হাসিমুখের মানুষ। আমরার সাথে কিছুদিন আগে মন্দিরে দূর্গা পূজা দেখতে এসে যে সুন্দর ব্যবহার করেছেন এতে তার ব্যবহারে আমরা খুবই সন্তুষ্ট।

নতুন প্রজন্মের উৎপল বিশ্বাস জয়, শ্রী কৃষ্ণ সরকার ও রাজন দেবনাথ তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, মানিক ভাইয়ের মধ্যে হিন্দু মুসলমানের কোন ভেদাবেদ দেখতে পাইনি। তিনি সকলের কাছে একজন প্রিয় মানুষ, একজন ভালো মানুষ। আমরা তার মতো একজন মানুষকে নির্বাচনে দেখতে চাই। বলাইশিমুল গ্রামের কৃষক আলী উসমান ও আতিকুর রহমান চুন্নু বলেন, মানিকভাইর ব্যবহারে মানুষ খুব উৎসাহি।

তারা বলেন, মানিক ভাই নৌকা পাইলে নির্বাচন করব দশে মিলে, এই নির্বাচনে দলমতের বাইরেও সকল শ্রেণিপেশার মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্বাচনে নৌকার বিজয়ে ঝাঁপিয়ে পড়বে। আশুজিয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিকুর রহমান বলেন, মানিক ভাই নির্বাচনী মাঠে এসে নৌকার ভোট চাইতে গিয়ে কোন গ্রুপিং সৃষ্টি করেন নি। তার সঙ্গে যারা এসেছেন সামনে যাদেরকে পেয়েছেন তাদেরকে নিয়েই শেখ হাসিনার জন্য নৌকায় ভোট চেয়েছেন।

আটপাড়া বানিয়াজান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক উজ্জল দত্ত তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, মনোনয়ন দেবেন মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী আমাদের ঠিকানা শেখ হাসিনা। তিনি যাকেই মনোনয়ন দেন তার নির্বাচনই আমরা করব। তবে মুক্তিযোদ্ধা সাইদুর রহমান মানিক তার আদর্শিক ও সহজ সরল হাসিমুখের ব্যবহারে সকলের উপরে আছেন জনপ্রিয়তার ক্ষেত্রে। তার জন্য মঙ্গল কামনা করি।

কুমুড়উড়া গ্রামের উজ্জল সরকার বলেন, মুক্তিযোদ্ধা মানিক ভাইয়ের মনে কোন অহংকার দেখিনা। পূজায় এসে তিনি মানুষের মন যেভাবে জয় করেছেন তা মনে রাখার মতো। রোয়াইলবাড়ী আমতলার অজিত সরকার বলেন, সাইদুর রহমান মানিক সত্যিকার অর্থেই একজন গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি। তার কাছে প্রাণ খুলে মনের কথা বলা খুব সহজ। তিনি মনোনয়ন পেলে সকলে মিলেই তার নির্বাচন করবে। তবে শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দেন আমরা তার নির্বাচনই করব।

মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান হাবিব ও জসিম উদ্দিন কেনু বলেন, মানুষ চায় একজন ভালো মানুষ। যে মানুষ মানুষের সঙ্গে মিশে আর্তপিড়িত মানুষের সেবা করেন। মানিক ভাই কেন্দুয়া পৌর শহরের সাউদপাড়া মহল্লার বাসিন্দা লোক ঐতিহ্য সংগ্রাহক সন্তোষ সরকারের চিকিৎসা সহায়তা দিতে তার ব্যক্তিগত এবং রাষ্ট্রপতির আর্থিক অনুদান নিয়ে যেভাবে পাশে দাড়িয়েছেন, এতে হাজার হাজার মানুষ তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। আমরা মুক্তিযোদ্ধারা চাই মানিক ভাই নৌকা প্রতীক নিয়ে আসলে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে কোন বিভেদ ও বিশৃঙ্খলা থাকবে না। সকল শ্রেণি পেশার মানুষ হাসি মুখে তার নির্বাচন করবে। একই ভাবে কেন্দুয়া ও আটপাড়া উপজেলার প্রতিটি গ্রামের শত শত সহজ সরল মানুষ যারা নোংরা রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নন তাদের এক কথা আমরা শেখ হাসিনার কাছে নৌকা চাই, সেই নৌকা মানিক ভাইর।

(এসবি/এসপি/নভেম্বর ২০, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১০ ডিসেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test