Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মাগুরার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ি দৌড় প্রতিযোগিতা

২০১৯ মে ২১ ১৭:৪২:১৮
মাগুরার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ি দৌড় প্রতিযোগিতা

রূপক আইচ, মাগুরা : মাগুরার শালিখা উপজেলার সিংড়ায়  সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হলো গরুর গাড়ির দৌড় প্রতিযোগিতায়। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাগরণীচক্র ফাউন্ডেশনের আয়োজনে পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের সহায়তায় এ ব্যতিক্রমী প্রতিযোগিতা দেখতে  হাজার হাজার মানুষ ভীড় জমায়। এ উপলক্ষে বসে বসে গ্রামীণ মেলা। 

আয়োজকরা জানান, তথাকথিত আধুনিকতার নামে আমরা আমদের প্রাচীণ ঐতিহ্যগুলি হারিয়ে ফেলতে বসেছি । এছাড়া গ্রামের মানুষের চিত্ত বিনোদনের এখন আর তেমন ব্যবস্থা নেই । এ কারণে নির্মল চিত্ত বিনোদনের এ ব্যবস্থা সবাইকে বিমোহিত করেছে । এ প্রতিযোগিতা এ অঞ্চলের মানষের মধ্যে উৎসবের আজেম সৃষ্টি করেছে।

ব্যতিক্রমী গরুর গাড়ির দৌড় দেখতে নানা বয়সের হাজার হাজার হাজার মানুষ উপস্থিত হয়েছিল। সিংড়া উত্তরপাড়া মাঠে এ উপলক্ষে আশপাশের প্রায় ৫ কিলোমিটার এলাকায় শুরু হয় উৎসব ।

স্থানীয় বিভা বিশ্বাস, মইনুল ইসলাম, বাসুদেব বিশ্বাস,এসসেন্দার আজম সহ একাধিক ব্যক্তি জানান- হারিয়ে যেতে বসা গ্রাম বাংলার নির্মল চিত্ত বিনোদন এর এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন নিয়মিত করা উচিত। এতে নতুন প্রজন্ম তাদের ঐতিহ্যবাহি সংস্কৃতিগুলিকে জেনে নিজেদের গড়ে তুলতে পারবে ।

প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকারি বাঘারপাড়া থানার সুখদেবপুর গ্রামের কৃষক আবু তালেব জানান- এ ধরনের প্রতিযোগিতার জন্য তিনি দুটি গরুকে বিশেষ ভাবে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। দেশের বিভিন্ন স্থানে তিনি এ গরু নিয়ে প্রযোগিতায় অংশ নেন। দ্রুত গতির জন্য দর্শকরা তার গরুদুটির নাম দিয়েছেন রকেট। প্রতিযোগিতায় ৩ রাউন্ডে ১৮টি গরুর গাড়ি অংশ নেয়। প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে শালিখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তারিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ধনেশ্বরগাতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিমলেন্দু শিকদার ।

আয়োজক সংস্থা জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনের পরিচালক (কর্মসূচী) কাজী মাজেদ নেওয়াজ জানান- সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া মনস্ক জাতি গঠনে সহযোগিতার লক্ষে ২০১৬ সাল থেকে সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচী আয়োজন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় এ গরুর গাড়ির দৌড় প্রতিযোগিতা। আমাদের যে সব প্রাচীণ ঐতিহ্য হারিয়ে যাচ্ছে সেগুলিকে নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচয় করানোর মধ্য দিয়ে শুদ্ধ ও নির্মল বিনোদনই এ কর্মসূচীর লক্ষ । এ কাজে আমাদের সহায়তা করছে পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন ।

(ডিসি/এসপি/মে ২১, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test