Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

স্ত্রীর করা মামলায় ৪ মাসেও গ্রেফতার হয়নি সাবেক কাউন্সিলর মিলটন

২০১৯ জুলাই ০৩ ১৮:০২:১৪
স্ত্রীর করা মামলায় ৪ মাসেও গ্রেফতার হয়নি সাবেক কাউন্সিলর মিলটন

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার আদমদীঘিতে যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রী ও স্বাশুড়িকে হত্যার উদ্যেশ্যে মারপিট সংক্রান্ত মামলায় আদালত কর্তৃক গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির ৪ মাসেও গ্রেফতার হয়নি নওগাঁর নজিপুর পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর ও আওয়ামীলীগ নেতা মিলটন উদ্দিন মন্ডল।

আসামী মিলটন মন্ডল প্রকাশ্যে চলাফেরা ও নিজ বাড়িতে বসবাস করলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছেনা বলে অভিযোগ করেছেন মিলটনের স্ত্রী নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার বাদিনী সুরাইয়া শারমিন। এ অবস্থায় মিলটন মামলা তুলে নেয়ার জন্য নানা ভাবে ভয়ভিতি দেখানোর কারনে তাকে তাকে স্ব-পরিবারে নিরাপত্তহীনতায় দিনযাপন করতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বাদিনী। আদালত উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে গত ১৬ মে আসামীর মালামাল জব্দের আদেশ দিয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, আদমদীঘির কুন্দগ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে সুরাইয়া শারমিন ২০১৪ সালে পত্নীতলায় একটি অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করতে গেলে সেখানে উক্ত সাবেক কাউন্সিলর মিলটন উদ্দিন উভয়ের প্রস্তাবে ৫লাখ ১টাকা দেনমোহর ধার্য্যে বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর থেকে তারা নওগাঁ ও সান্তাহার ভাড়া বাসায় সংসার করাকালে নানা ভাবে স্ত্রী শারমিনকে শারিরিক নির্যাতন করলে ২০১৬ সালের ২৩ নভেম্বর শারমিন স্বামী মিলটনকে তালাক প্রদান করেন। এরপর কৌশলে ২০১৮সালের ১৫ মার্চ ৭ লাখ ১০১ টাকা মোহরানা ধার্যে বাদিনীকে মিলটন পুনরায় বিয়ে করে সান্তাহার ঘোড়াঘাট আসামী ময়নুল ইসলামের ভাড়া বাসায় স্বামী স্ত্রী রুপে বসবাস শুরু করে। এদিকে দ্বিতীয় বার বিয়ে করার পর ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে নানা ভাবে নির্যাতন ও হমকি দিয়ে আসছিলো।

গত ২০১৮ সালের ১৬ মার্চ রাতে স্বামী মিলটন পুনরায় যৌতুক দাবী করে না পেয়ে অপর আসামী ময়নুল ইসলামের যোগসাজশে হত্যার উদ্দেশ্যে বাদিনী স্ত্রী ও তার স্বাশুড়িকে বেদম মারপিটে আহত করে। এ ঘটনায় স্ত্রী সুরাইয়া শারমিন বাদি হয়ে বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-২-এ স্বামী মিলটন উদ্দিন ও তার সহযোগী মইনুল ইসলামের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত গত ৬ মার্চ শুনানী শেষে বাদিনীর নারাজি আবেদন মঞ্জুর করে আসামী বাদিনীর স্বামী মিল্টন উদ্দিন ও ভারাটে বাড়ির মালিক ময়নুল ইসলামের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানাজারী করেন। গ্রেফতারি পরোয়ানার প্রেক্ষিতে ২৭ মার্চ ময়নুলকে গ্রেফতার করে বগুড়া জেল হাজতে প্রেরণ করেন। কিন্তু বাদিনীর অভিযোগ মিলটন উদ্দিন আওয়ামীলীগ করায় এবং প্রভাবশালী হওয়ায় সে নিজ বাড়ি ও প্রকাশ্যে চলাফেরা করলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছেনা।

এ বিষয়ে পত্নীতলা থানার ওসি পরিমল কুমার চক্রবর্তী সাংবাদিকদের জানান, থানায় ওয়ারেন্ট আছে কিনা আমি ঠিক জানিনা । তবে ওয়ারেন্ট এসে থাকলে আসামি মিলটনকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

(এস/এসপি/জুলাই ০৩, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

১৯ আগস্ট ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test