Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বিএনপি : কাদের

২০১৯ নভেম্বর ২১ ১৬:১১:১০
আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বিএনপি : কাদের

নোয়াখালী প্রতিনিধি : সড়ক ও সেতু পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সড়কে আইন করা হয়েছে শৃংঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য, কাউকে শাস্তি দেওয়ার জন্য নয়। এ আইন সড়কে শৃঙ্খলার জন্য করা হয়েছে। বিএনপি গুজবের দলে পরিণত হয়েছে, বিএনপি দুর্ভোগ এবং গুজবের রাজনীতি করে। একই সাথে বিএনপি সড়ক পরিবহন আইন নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। 

আজ বৃহস্পতিবার নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সড়ক আইন বিষয়ে কাদের বলেন, সড়কে যারা ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে তাদের বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে এ সমস্যার সমাধান হবে একই সাথে জনগনকে কষ্ট না দিতে শ্রমিকদের প্রতি আহবান জানান।

বিএনপিকে উদ্দেশ্যে সেতুমন্ত্রী বলেন, নেতিবাচক রাজনীতির কারণে তারা সব ঘাঁটি হারাচ্ছে। নির্বাচনে এবং আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। তারেক জিয়া দেশের বাইরে থেকে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। দেশের জনগণের সাড়া না পেয়ে, বিদেশিদের কাছে নালিশ করছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, রাজনীতিতে ঝলক দেখিয়ে সফল হওয়া যায় না। রাজনীতিতে মডারেট ব্যক্তিরাই সফল হবে। শেখ হাসিনার সততা, পরিশ্রম ও কমিটমেন্ট তার সাফল্যের চাবিকাঠি। বিশ্বের ১০ জন প্রভাবশালী রাষ্ট্রনায়কদের মধ্যে তিনি একজন। গত ৪৪ বছরে এ দেশে সবচেয়ে সাহসী, বিচক্ষণ, প্রশাসক, সফল কূটনীতিক ও সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা শেখ হাসিনা।

তিনি দলের উদ্দেশ্যে বলেন, শৃঙ্খলার সাথে থাকলে যেকোনো মুহূর্তে তারা সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবে যারা শৃংখলার বাইরে কাজ করবে তারা সকল কার্যক্রম থেকে বহিস্কৃত হবে। বর্তমান কমিটি হাত ধরে নোয়াখালী আওয়ামীগ আগের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী।

লবন ও পেঁয়াজের বিষয়ে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে লবণ ও পেঁয়াজের বিষয়টি ফেসবুকের একটি গুজব। এই গুজবে কান না দেয়ার জন্য আহ্বান জানান।বিএনপি পেঁয়াজ ইস্যু না পেয়ে এবার সড়ক আইন নিয়ে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের ১০ জন প্রভাবশালী নেতাদের মধ্যে অন্যতম। বঙ্গবন্ধুর রক্তাক্ত বিদায়ের পর ৪৪ বছরে বাংলাদেশের সবচেয়ে সাহসী নেতা ও সফল সভাপতি হিসাবে শেখ হাসিনার নাম উজ্জ্বল হয়ে থাকবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন,আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ,সাংগঠনিক সম্পাদকএনামুল হক শামীম, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এ্যাড. অসীম কুমার উকিল, মির্জা আজম এমপি।

এরআগে, দুপুরে মন্ত্রী জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এবং বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খায়রুল আনম সেলিম এবং প্রধান বক্তা ছিলেন একরামুল করিম চৌধুরী অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিচালনা করেন হোসেন এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন ও আব্দুল ওয়াদুদ পিন্টু।

(এস/এসপি/নভেম্বর ২১, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test