E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বিজয়ী হলে মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়নসহ পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন : স্বতন্ত্র প্রার্থী রহিম  

২০২০ সেপ্টেম্বর ২২ ২২:৫০:২৯
বিজয়ী হলে মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়নসহ পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন : স্বতন্ত্র প্রার্থী রহিম  

মো. আব্দুল কাইয়ুম, মৌলভীবাজার : আসন্ন মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এম এ রহিম ( সি.আই.পি) বলেছেন, আসন্ন জেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে ভোটের লড়াইয়ে বিজয়ী হলে জেলার পর্যটন খাতসহ মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়নই হবে আমার প্রথম প্রদক্ষেপ।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি তার এই মনোভাবের কথা এ প্রতিবেদকের কাছে ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, আমার ইচ্ছা ছিলনা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার। দেশে আসার পর ভোটারদের চাপে এখন নির্বাচনে আসার সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। আমি নির্বাচিত হলে জেলার উন্নয়নে আমার ব্যাপক পরিকল্পনা রয়েছে যেটা জেলার সকল সাংবাদিকরা জানেন। বহুল প্রত্যাশিত মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়নে আমি নানাভাবে ভুমিকা রেখে চলেছি এবং এই কাজে আমি সবসময় সোচ্চার ছিলাম এবং আছি। আমার চেষ্টায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এশিয়া উপ মহাদেশের সবচেয়ে বড় হাওরকে উন্নয়ন মহা পরিকল্পনায় স্থান দিয়েছেন। আমি সবসময় জনগনের জন্য কাজ করি আমি জনতার পাশে আছি।

তিনি আরো বলেন, দু:খের বিষয় আমি মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়নে সবসময় সোচ্চার ছিলাম কিন্তু এখনো মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়ন হয়নি, হয়নি পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন। সুতরাং আমি নির্বাচিত হলে আমার প্রথম প্রদক্ষেপ থাকবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে সম্মত করে মৌলভীবাজারে সরকারি মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়ন এবং জেলা পর্যটন খাতের সামগ্রীক উন্নয়ন।

এদিকে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ার পর গত সোমবার রাতে নিজ বাসায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নির্বাচনে অংশ নেওয়া বিষয়ে বৈঠক করেন আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী এনেতা। ওই বৈঠকে তাঁর অনুসারী, দলের তৃণমূলের নেতাকর্মী, জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত জনপ্রতিনিধি (ভোটার) ও শুভাকাঙ্খিদের অনুরোধে তিনি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্ধীতা করবেন বলে ঘোষণা দেন। ওই বৈঠকে তিনি বলেন, আমার ন্যায্য অধিকার থেকে নানা কুট কৌশল করে আমাকে দলীয় মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রথমবারের মত ২০১৬ সালের ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় জেলা পরিষদ নির্বাচন। ওই নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে নানা চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হন আওয়ামীলীগ নেতা ও যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শিল্পপতি এম এ রহিম ( সি.আই.পি)।

তবে সেসময় আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পান বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর প্রয়াত আলহাজ্ব আজিজুর রহমান আর স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়ে ভোটের লড়াইয়ে জয়ী না হলেও ২৫৩ ভোট পান যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এম এ রহিম ( সি.আই.পি)। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. আজিজুর রহমান ৩৪২ ভোটে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী এম এম শাহীন। তিনি ২৮৯ ভোট পান।

(একে/এসপি/সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

২২ অক্টোবর ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test