E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

কর্ণফুলীর উপ-নির্বাচনে মামলার আসামিও মেম্বার প্রার্থী!

২০২০ সেপ্টেম্বর ২৫ ১৮:৫৬:২১
কর্ণফুলীর উপ-নির্বাচনে মামলার আসামিও মেম্বার প্রার্থী!

স্টাফ রিপোর্টার : চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলা জুলধা ইউনিয়নের সাধারণ সদস্য (মেম্বার) পদে প্রার্থী হয়েছেন মারামারি ও হত্যার উদ্দেশ্যে জখম মামলার আসামি জয়নাল আবেদীন বাবুল। অভিযোগ রয়েছে, বাবুলের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

আগামী ২০ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) জুলধা ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য পদ খালি হওয়ায় এ আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. আবদুল শুক্কুর।

মামলার তথ্যের বিশ্লেষণে দেখা যায়, সিআর মামলা নং-১৩১/১৫ইং (কর্ণফুলী)। ধারা ১৪৮/ ৩০৭/ ৩২৬/ ৩২৫/ ৩২৪/ ৩২৩/ ৪৪৭/ ৪৪৮/ ৫০৬/ ১০৯ দন্ডবিধি। পিবিআই তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পুলিশ পরিদর্শক মো. জসিম উদ্দিন প্রতিবেদনে স্পষ্টভাবে উল্লেখ্য করেন, কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বিবাদী জয়নাল আবেদীন বাবুল বেআইনি জনতায় দলবদ্ধ হয়ে হাতে বাঁশ ও কাঠির লাঠি নিয়ে উত্তেজিত অবস্থায় বাদীর সীমানায় প্রবেশ করে মো. রফিক ও মো. জালাল আহম্মদ কে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি মারধর করে জখম করে।'

এছাড়াও, জয়নাল আবেদীন বাবুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছেগত ৮ সেপ্টেম্বর সকালে একই উপজেলার উত্তর জুলধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিন স্কুল শিক্ষিকাকে ভয় দেখিয়ে স্কুল কমিটির কাগজপত্র ছিনিয়ে নেয়ার। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের তিন শিক্ষিকা কহিনুর আক্তার, রহিমা বেগম ও কহিনুর বেগম কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা (ইউএনও) বরাবর অভিযোগ করেছেন।

জুলধা ইউনিয়নের শাহ আলম, জাগির ও মোনাফ বলেন, ‘সৎ এবং যোগ্য প্রার্থী কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকেন না। থাকলে তাদের ভালো মানুষ বলা যায় না। আর এসব মানুষের জনসেবার আগ্রহ নিয়েও সন্দেহ থেকে যায়। যারা জনকল্যাণে নিবেদিত, তাদের বিরুদ্ধে কখনোই মারামারি ও হত্যা চেষ্টার উদ্দেশ্যে জখম মামলার মতো গুরুত্বর অভিযোগ থাকতে পারে না।

জুলধা ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ডের জাফর আলম বলেন, এলাকায় পোস্টার কিংবা ব্যানারে প্রার্থীদের ‘সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ে জননেতা’, ‘জনগণের সেবক’ মেহনতি মানুষের পরমবন্ধু ঘোষণা দিয়ে ভোটারদের মন জয় করা যাবে না। আগামীতে তরুণ নেতৃত্বের বিষয়ে সাধারণ মানুষের খুব বেশি আগ্রহ দেখা যাচ্ছে বলে তিনি জানান।'

সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা থাকলে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবে কিনা জানতে চাইলে কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. আবদুল শুক্কুর জানান, আদালত কতৃক ফেরারী কিংবা সাজাপ্রাপ্ত না হলে নির্বাচন বিধিতে তেমন সমস্যা আছে বলে মনে হয়না। তারপরেও কারো বিরুদ্ধে তথ্যসহ লিখিত অভিযোগ পেলে খতিয়ে দেখা হবে।'

অনেকে আবার নির্বাচন অফিসকে হলফনামায় উল্লিখিত প্রার্থীদের তথ্য তার এলাকায় প্রচারের অনুরোধ জানান; যাতে করে ভোটাররা প্রার্থীদের সম্পর্কে জেনে-শুনে-বুঝে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন।

প্রসঙ্গত, রিটার্নিং অফিসার কতৃক মনোনয়ন বাছাইয়ের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৩ অক্টোবর ও ভোট গ্রহণের তারিখ ২০ অক্টোবর (মঙ্গলবার)।

(ওএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

২০ অক্টোবর ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test