E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

২৪ ঘন্টার ব্যবধানে দুই শিশু ধর্ষিত, মাদরাসা ছাত্র আটক

২০২০ অক্টোবর ২১ ১৮:০৭:০৮
২৪ ঘন্টার ব্যবধানে দুই শিশু ধর্ষিত, মাদরাসা ছাত্র আটক

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে দ্বিতীয় শ্রেণী ও প্রথম শ্রেণীর দু’ ছ্ত্রাী ধর্ষিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১১টায় ও মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে যথাক্রমে সাতক্ষী রা সদরের ঝাউডাঙা ইউনিয়নের উত্তর পাথরঘাটা ও ফিংড়ি ইউনিয়নের শিমুলবাড়িয়া গ্রামে এসব ঘটনা ঘটে। প্রথম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে জনতা পঞ্চম শ্রেণীর এক মাদ্রাসা ছাত্রকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

আটককৃতের নাম- শিহাব হোসেন (১৩)। সে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের শহীদুল বিশ্বাসের ছেলে ও ফিংড়ি দাখিল মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র।

উত্তর পাথরঘাটা গ্রামের এক দিনমজুরের স্ত্রী জানান, তার মেয়ে (৮) স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। সে বুধবার সকাল ১১টার দিকে তাদেরই আত্মীয় একই গ্রামের মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত বাবলু শেখের বাড়িতে খেলতে যায়। বাবলু শেখের ছেলে আলী শেখ (১৭) তার মেয়েকে খাবার দেওয়ার নাম করে ঘরে ডেকে নিয়ে মুখ চেপে ধরে খুন করার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। মেয়ে বাড়িতে আসার সময় তার হাঁটা চলা অস্বাভাবিক মনে হওয়ায় জিজ্ঞাসা করতেই সে ঘটনার বর্ণনা দেয়। এ সময় জনতা আলী শেখকে আটক করে পরে পুলিশে সোপর্দ করে। মেয়েটিকে বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ফিংড়ি ইরুনিয়নের শিমুলবাড়িয়া গ্রামের এক গৃহবধু জানান, তার মেয়ে শিমুলবাড়িয়া প্রথম শ্রেণীতে পড়াশুনা করে। তাদের বাড়ি থেকে তার দেবরের নতুন বাড়ি ২০০ গজ দূরে। মঙ্গলবার মেয়েকে নিয়ে দেবরের বাড়ির পিছনে নিজস্ব জমিতে লাগানো কচুরমুখি বাঁছাই করতে যান তিনি। ভাসুরের চার বছরের ছেলের সঙ্গে খেলা করাকালিন মেয়েকে রেখে তিনি বাড়িতে চলে আসেন। সকাল ১১টার দিকে তাদের আত্মীয় শিহাব হোসেন তার মেয়ের বুকবসহ বিভিন্ন স্থানে হাত দেয়। এবং এক ধরণের নতুন খেলঅ করার কথা বলে। মেয়ে আপত্তি করায় তাকে ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক সেই বিশেষ খেলা করার কথা বলে পাশের ঘাসবনে নিয়ে যায়। মেয়েটি শিহাবের হাত থেকে বাঁচতে সেখানে থাকা চারা গাছে ওঠে। গাছে উঠে শিহাবও ধাওয়া করলে মেয়েটি গাছ থেকে পড়ে যায়। এরপর শিহাব তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। মেয়েটির চিৎকারে তার দেবর ও দাদা শ্বশুর এসে শিহাবকে আটক করে । মেয়েটিকে পরে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। জনতা শিহাবকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।বুধবার তার ডাক্তারি পরীক্ষা হলেও বৃহষ্পতিবার আদালতে জবানবন্দি নেওয়া হবে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, পাথরঘাটার দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি। তবে শিমুলবাড়িয়ার ঘটনায় মেয়েটির মা বাদি হয়ে শিহাবের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা করেছে। বুধবার বিকেলে শিহাবকে আদালতে পাঠানো হয়েছে# সাতক্ষীরা প্রতিনিধি।

(আরকে/এসপি/অক্টোবর ২১, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

০৫ ডিসেম্বর ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test