E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

ভূঞাপুর পৌরসভায় আ. লীগের গলার কাঁটা বিদ্রোহী প্রার্থী

২০২১ জানুয়ারি ১৯ ১৬:০৪:৫০
ভূঞাপুর পৌরসভায় আ. লীগের গলার কাঁটা বিদ্রোহী প্রার্থী

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পৌরসভার নির্বাচন আগামি ৩০ জানুয়ারি তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। প্রতীক পেয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা। ভোটারদের মন জয় করতে প্রার্থীরা নানা কৌশলে সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। সমান তালে চলছে মিটিং-মিছিল ও পথসভা। নিজেদের অবস্থান তুলে ধরে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

ভূঞাপুর পৌরসভায় মেয়র পদে তিনজন প্রার্থী লড়াইয়ে নেমেছেন। তারা হচ্ছেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুদুল হক মাসুদ, বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী পৌর বিএনপির সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) জগ প্রতীকের প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সাত্তার।

আওয়ামীলীগের কাছে পৌরসভাটি দুর্গ হিসেবে বিবেচিত। এখানে টানা দুইবার মেয়র নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুদুল হক মাসুদ। এবারও তিনি দলীয় টিকিটে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। দলীয় নেতাকর্মীরা তার পক্ষে মাঠে নেমেছেন। তারা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা সহ নতুন নতুন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। স্থানীয় সংসদ সদস্য ছোট মনিরের উন্নয়নের ছোঁয়া ও পাল্টে গেছে এ পৌরসভার উন্নয়নের চিত্র। তবে পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সাত্তার দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় অনেকটা বেকায়দায় পড়েছেন মাসুদুল হক মাসুদ। স্থানীয় আওয়ামী লীগের বিশাল একটি অংশ নীরব রয়েছে। আবার অনেককেই বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে প্রকাশ্যে নির্বাচনী প্রচারণায় দেখা যাচ্ছে। এতে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়াচ্ছে বিদ্রোহী প্রার্থী।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় এ সুযোগকে কাজে লাগাতে চায় বিএনপি। কেন্দ্রীয় জাতদীয়তাবাদী যুব দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু বিএনপি প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া থেকে শুরু করে সার্বক্ষনিক নির্বাচনী কার্যক্রম মনিটরিং করছেন। এছাড়া একক প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন, দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

ভোটাররা জানায়, পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও রাস্তাঘাটের ব্যাপক সমস্যা রয়েছে। যিনি এসব সমস্যা সমাধানে কাজ করবেন তারা তাকেই বেছে নেবেন।

সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, বর্তমানে পৌরসভায় বিশৃঙ্খল অবস্থা বিরাজ করছে। তিনি মেয়র নির্বাচিত হতে পারলে পৌর এলাকার প্রধান সমস্যা ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ একটি আধুনিক পৌরসভা গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করবেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুদুল হক মাসুদ জানান, মেয়র হিসেবে তিনি রাস্তাঘাটসহ পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। ভূঞাপুরবাসীর প্রাণের দাবি বাসস্ট্যান্ড নির্মাণ করেছেন। দলীয় নেতা-কর্মীসহ সাধারণ ভোটারদের নৌকার পক্ষে ব্যাপক সারা রয়েছে। তিনি টানা তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হলে ড্রেনেজ সমস্যা সমাধান, সাপ্লাই পানির ব্যবস্থাসহ অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করে একটি আধুনিক ও জবাবদিহীমূলক পৌরসভা গঠন করবেন।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) জগ প্রতীকের প্রার্থী ভূঞাপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সাত্তার জানান, সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে তিনি অনেকটা শঙ্কায় রয়েছেন। তার পক্ষে সাধারণ ভোটারদের ব্যাপক সাড়া রয়েছে। তিনি মেয়র নির্বাচিত হলে ভূঞাপুর পৌরসভাকে একটি দুর্নীতিমুক্ত পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবেন। মেয়র প্রার্থী ছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে ৩০ জন কাউন্সিলর ও ৩টি ওয়ার্ডে ১১ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

টাঙ্গাইলের সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার এএইচএম কামরুল ইসলাম জানান, এ পৌরসভায় মোট ভোটার ২১ হাজার ৭২৯ জন। এর মধ্যে মহিলা ভোটার ১০ হাজার ৮৮৪ জন ও পুরুষ ভোটার ১০ হাজার ৮৪৫জন। আগামি ৩০ জানুয়ারি ১০টি কেন্দ্রে ৫৭টি ভোট কক্ষে এসব ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

(আরকেপি/এসপি/জানুয়ারি ১৯, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০৬ মার্চ ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test