E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বাবুপাড়া ইউনিয়নের উন্নয়নের রোল মডেল সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সরোয়ার

২০২১ জানুয়ারি ২২ ১৪:১৩:০৫
বাবুপাড়া ইউনিয়নের উন্নয়নের রোল মডেল সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সরোয়ার

আবুল কালাম আজাদ, রাজবাড়ী : রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান বাবুপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, আবুল কাশেম সরোয়ার এর বিরুদ্ধে ফেসবুকে একটি কুচক্রী মহল বিভিন্ন কুৎসা রটনা করছে এবং মিথ্যাচার করছে। 

এই সংক্রান্তে তার সাথে একান্ত আলাপ চারিতায় তিনি বলেন, যে সাংবাদিক আমার বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করছে আমি ব্যক্তিগত ভাবে তাকে চিনিনা বা জানিনা। সে আমার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ মিথ্যাচার করছে আমি এর তিব্র নিন্দা জানাই। এতে আমার ও আমার পরিবারের ব্যাপক মানহানি হচ্ছে। আমি আমার ইউনিয়নের জনসাধারণের সাথে আলাপ আলোচনা করে কথিত সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেব। আমি যে আমার ইউনিয়নের জনসাধারণের চলাচলের জন্য অনেক রাস্তাঘাট নির্মাণ করেছি যা আগে বাবুপাড়া ইউনিয়নবাসী কল্পনাও করতে পারে নাই। আগামীতে দল যদি আমাকে দলীয় নমিনেশন দেয় তা হলে আমি বাবু পাড়া ইউনিয়নবাসীর জন্য আমার উন্নয়েরনধারা অভ্যহত রাখবো।

তিনি গত ২০১১ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত সফলতার সাথে তার ইউনিয়ন পরিষদ পরিচালনা করেছে। তিনি চেয়ারম্যান থাকা কালিন সমায়ে বাবু পাড়া ইউনিয়নের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছিল। রাস্তাঘাট, ব্রীজ কালর্ভাট, স্কুল মসজিদ মন্দির ইত্যাদি। তিনি জনগনের বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। বাবু পাড়া ইউনিয়নের সকল নাগরিক সুযোগ সুবিধা প্রদান করেন। চেয়ারম্যান থাকা কালিন সমায়ে জনসাধারণের সবসময় সেবা করে গেছেন এবং এখনও জনসাধারণের সেবা করে চলছেন।

বাবু পাড়া ইউনিয়ন সরোজমিনে ঘুরে দেখা যায়, যে সকল স্কুল মাদরাসা অবহেলিত ছিলো সেগুলো তার একান্ত প্রচেষ্টা ও ব্যক্তি উদ্দোগে ব্যপক পরিবর্তন করেছেন।

বাবু পাড়া ইউনিয়নের সুজানগর গ্রামের জৈনক এক বৃদ্ধ বলেন, সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সরোয়ার আমাদের অনেক সহোযোগীতা করেছেন এবং এখনো করছেন ।

আরেকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, আমরা আগে যে সুযোগ সুবিধা পেয়েছি এখন তা পাচ্ছি না। তিনি অনেক ভালো মানুষ ছিলেন এবং সবার খোজখবর রাখতেন বা রাখেন। তিনি সকল নাগরিকদের সমস্যা শোনেন এবং সমাধান করেন। চেয়ারম্যান থাকা কালীন তিনিশত ভাগ বয়স্কভাতা প্রদান সহ মাতৃকালিন ভাতা প্রাদান করেছেন। এবং তিনি কোন দলমত বাছেন না সবার সাথে তিনি ভালো একাকার হয়ে কাজ করেন।

তিনি বাবুপাড়া ইউনিয়ন বাসীর নিবেদিত প্রাণ। করোনাকালীন সমায়ে বাবুপাড়া ইউনিয়নে তিনি ব্যক্তি উদ্দোগে সাধারণ অসহয় দুস্থ মানুষের মাঝে খাবার সহায়তা সহ নগদ অর্থ ও অন্যান্য সকল কিছু সহয়তা করেন। তিনি ছিলেন বাবুপাড়া ইউনিয়নের উন্নয়নের রোল মডেল। বাবুপাড়া ইউনিয়নে যত উন্নয়ন মুলক কাজ হয়েছিলো তার আমলেই হয়েলিন।

(একে/এসপি/জানুয়ারি ২২, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০৫ মার্চ ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test