E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মৌলভীবাজারে তীব্র শৈতপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত 

২০২১ জানুয়ারি ২৬ ১৫:৪৪:০০
মৌলভীবাজারে তীব্র শৈতপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত 

মো. আব্দুল কাইয়ুম, মৌলভীবাজার : গত কয়েকদিন তীব্র শৈত প্রবাহ অব্যাহত রয়েছে মৌলভীবাজার জেলা জুড়ে। এতে করে বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায়, স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন। কয়েকদিন যাবত রাত ১০ টার পর থেকেই কুয়াশার দাপট শুরু হয়ে চলে সকাল পর্যন্ত। 

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) ভোরের দিকে সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, প্রচন্ড ঘন কুয়াশার কারনে শ্রীঙ্গল সড়ক দিয়ে যান চলাচল ধীর গতিতে চলছে। এসময় চালকদের ঘন কুয়াশার কারনে গাড়ির হেড লাইট জ্বালিয়ে কোন রকম গন্তব্যের দিকে ছুটে যেতে দেখা যায়।

এদিকে চায়ের রাজধানীখ্যাত পর্যটন শহর শ্রীমঙ্গলেও বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। বেলা বাড়ার সাথে সাথে সূর্যতাপ বৃদ্ধি পেলে কনকনে হিমেল হাওয়ায় দাপট কিছুটা কমে যায়। তবে বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যে নামতেই তীব্র শীত অনুভত হতে থাকে।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) শ্রীমঙ্গলে রেকর্ড করা হয়েছে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা, ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়া সহকারি মো. আব্দুল আলিম এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, দেশের সর্বনিম্ন তালিকায় শ্রীমঙ্গল এর পরের অবস্থানে থাকা দুটি অঞ্চল হচ্ছে কুড়িগ্রামের রাজারহাট, ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া ১০ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস পরিসংখ্যানে দেখা যায়, একদিন আগেও দুটি তারিখে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গল। ২৩ জানুয়ারি এবং ২৪ জানুয়ারি দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গলে যথাক্রমে ৯ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং ৯ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

মৃদু শৈত্যপ্রবাহের কথা উল্লেখ করে শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া অধিদপ্তরের দায়িত্বরত কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান বলেন, এই অবস্থা আরো দু-একদিন বিরাজ করতে পারে। আকাশ পরিস্কার হয়ে যাওয়ায় উত্তরের হাওয়ার শীতল বাতাস বেশি অনুভত হচ্ছে।

(একে/এসপি/জানুয়ারি ২৬, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০৬ মার্চ ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test