E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় সাতক্ষীরা সীমান্তে ২২ বাংলাদেশি আটক 

২০২১ জানুয়ারি ২৮ ১৭:৪৫:৪০
অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় সাতক্ষীরা সীমান্তে ২২ বাংলাদেশি আটক 

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় পুলিশ ২২ জন বাংলাদেশীকে আটক করেছে। বুধবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে সাতক্ষীরা সদরের সীমান্তবর্তী কুলিয়াডাঙার ভ্যানচালক মোখলেছুরের বাড়ি তেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় পাচারকারী চক্রের কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে পাচারকারী চক্রের সহযোগী ভ্যানচালক মোখলেছুরের স্ত্রী নাসিমা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। 

আটককৃতদের মধ্যে ১০জন পুরুষ, ১০জন প্রাপ্ত বয়স্ক নারী ও দুইজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক শিশু কন্যা। যাদের মধ্যে নড়াইল জেলার ১৫জন, খুলনার ৩ তিন জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দু’জন, রংপুরের একজন ও মুন্সিগজ্ঞ জেলার একজন বাসিন্দা।

আটককৃতরা জানান, তারা কাজের জন্য ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দালালের মাধ্যমে সাতক্ষীরার বাঁশদহা ইউনিযনের কুলিয়াডাঙা গ্রামের ভ্যান চালক মোখলেছুর রহমানের বাড়িতে আসে। শুক্রবার ভোরে তাদেরকে তলুইগাছা সীমান্ত পার করে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরিস্থিতি ভাল না হওয়ায় তারা ভারতে যাওয়ার জন্য ওই বাড়িতে অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু খবর পেয়ে পুলিশ বুধবার রাত ১২টার দিকে তাদেরকে আটক করেছে।

এদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটককৃত মোখলেছুরের স্ত্রী নাছিমা বেগম জানান, তার স্বামী মোখলেছুর একজন ভ্যান চালক। তিনি এই দালাল চক্রের সাথে জড়িত নয়। তার স্বামী শুধু মাত্র যাত্রী বহন করে। তাদের বাড়িতে এই ২২ জন কেন অবস্থান করছে এমন প্রশ্নের জবাবে নাসিমা বেগম বলেন, সাতক্ষীরা কলারোয়া কেড়াগাছির আব্দুল হামিদের ছেলে আনারুল ইসলাম, একই গ্রামের কাশেম সরদারের ছেলে কাজিরুল ইসলাম ও বাঁশদহ ইউনিয়নের তলুইগাছা গ্রামের বাবলু এই ২২জনকে তাদের বাড়িতে রেখে গেছে। তাদেরকে খাওয়া বাবদ ৫০টাকা করে দেয় দালালেরা। এর বাইরে আর কিছু জানেন না তিনি।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামন বলেন, সাতক্ষীরা বাঁশদহ ইউনিয়নের কুলিয়াডাঙ্গা গ্রামের মোখলেছুরের বাড়িতে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত কিছু লোকজন অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে এমন খবরের ভিত্তিতে বুধবার রাত ১২টার দিকে ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দু’ শিশুসহ ২২জনকে আটক করা হয়।

পরে তাদের কে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সকলে স্বীকার করেন মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে তারা মাথাপিছু ১০ হাজার, কেউ ১৭ হাজার, কেউ বা ১৮ হাজার টাকার বিনিময়ে ভারতে যাওয়ার জন্য এসেছে। তবে তারা কেউ দালাল চক্রের সদস্যদের চেনেন না। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে এসেছে। বাড়ির মালিক মোখলেছুরের স্ত্রী নাসিমাকে ও আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে উপপরিদর্শক দেবপ্রসাদ মজুমদার বাদি হয়ে বৃহষ্পতিবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। তাদেরকে বৃহষ্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

(আরকে/এসপি/জানুয়ারি ২৮, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০১ মার্চ ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test