E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

নড়িয়ায় আশ্রয়ন প্রকল্প নির্মাণে বাধা, সরকারি কর্মকর্তার উপর হামলা

২০২১ জুলাই ০২ ২২:৩৫:০৯
নড়িয়ায় আশ্রয়ন প্রকল্প নির্মাণে বাধা, সরকারি কর্মকর্তার উপর হামলা

শীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ভোজেশ্বর ইউনিয়নে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের অধীনে গৃহহীনদের জন্য ঘর নির্মানে বাধা দিয়ে সরকারি কর্মচারিদের উপর হামলা করেছে সন্ত্রাসীরা। হামলাকারিরা নড়িয়া প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পি,আই,ও) মো. আহাদী হোসেনকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে। এ ঘটনায় নড়িয়া থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সাথে জরিত ৫ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে ভোজেশ্বর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের পাচক গ্রামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্রয়ন-২ প্রকল্প এর আওতায় যাদের জমি নেই ঘর নেই এমন হতদরিদ্রদের জন্য নির্মাণাধীন ৩২টি ঘরের কাজ পরিদর্শন করতে গেলে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় আঘাত করলে পিআইও মো. আহাদী হোসেন গুরুতর আহত হন। তার সাথে উপ-সহকারী প্রকৌশলী অসীম মন্ডলসহ আরো ৫জন আহত হয়েছেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্সে ভর্তি করেছেন।

জামাল গোরাপী, বোরহান গোরাপী, নুরুজ্জামান গোরাপী, খোকন ছৈয়াল, সোহেল রানা তালুকদার, ইদ্রিস তালুকদার, লিটন গোরাপী, আব্দুর রব বেপারী, সাগর গোরাপী, রুবেল গোরাপী, জয়নাল গোরাপী, আসমা বেগম, কামাল গোরাপীসহ ৫০-৬০ জন নারী-পুরুষ দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঠা নিয়ে এই হামলা করেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
স্থানীয় শহিদুল শিকদার জানান, যেখানে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মান করা হচ্ছে সে জমি এক সময় শব্দর গোরাপীর ছেলে বোরহান গোরাপী ও আমজাদ গোরাপীর ছেলে জামাল গোরাপীর পৈত্রিক সম্পত্তি ছিল বলে তাদের দাবী। সম্প্রতি উক্ত জমি খাস খতিয়ানভূক্ত হয়ে যাওয়ায় সরকার সেখানে দরিদ্র লোকদের ঘর নির্মান কাজ শুরু করেন। পরবর্তিতে গোরাপী পরিবার মামলা দায়ের করে এবং উক্ত জমিতে ঘর তোলা বন্ধ রাখতে আদালত কর্তৃক নিষেধাজ্ঞা জারি করে। আদালতের নিষেধাজ্ঞা জারির পরও প্রকল্পের কাজ চলমান রাখায় গোরাপী বংশের লোকেরা সরকারি অফিসারদের উপর হামলা করেছে।

আহত মো. আহাদী হোসেন, অসীম মন্ডলসহ অন্যান্যরা বর্তমানে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। দেশীয় দা’য়ের কোপে মো. আহাদী হোসেনের মাথা কেটে গেলে তার মাথায় আটটি সেলাই দিতে হয়েছে।
নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্সের চিকিৎসক ডা. সোয়াদ মো. ইকরামুল হক বলেন, মাথায় বেশি আঘাত প্রাপ্ত হয়েছে। মস্তিস্কে আঘাত পেয়েছেন জানিয়ে চিকিৎসক বলেন রাতের মধ্যে অবস্থার উন্নতি না হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।

ভোজেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল হক ব্যাপারী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্পটি গত রমজানের আগে শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, জেলা প্রশাসক মহোদয় উদ্বোধন করেন। সেখানে দরিদ্র মানুষের জন্য ৩২টি ঘর নির্মানের কাজ এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এমন সময় সরকারের খাস সম্পত্তি নিজেদের দাবী করে গোরাপীরা পিআইওর উপর হামলা করেছে। তারা এদেশে প্রতিষ্ঠিত বিএনপির লোক। তাদের পেছনে নিশ্চয়ই কোনো বড় শক্তি রয়েছে, নয়তো তারা এ হামলার সাহস করত না। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই এবং জরিতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

নড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) অবনী শংকর কর জানান, এঘটনার সাথে জরিত সন্দেহে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন বোরহান গোরাপী, খোকন ছৈয়াল, সোহেল রানা তালুকদার, লিটন গোরাপী, আব্দুর রব বেপারী। মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা সেষে বাকী আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা করবো।

নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মোঃ রাশেদউজ্জামান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব প্রকল্প আশ্রয়ন-২। এ প্রকল্পটি প্রধানমন্ত্রীর আবেগের স্থল। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলায় গৃহহীনদের আশ্রয় দেয়ার প্রকল্প। সে প্রকল্পের কাজে সরকারি কর্মচারিদের উপর হামলা, পিআইও'কে কুপিয়ে আহত করা এটা কিছুতেই মেনে নেয়ার নয়। দুস্কৃতিকারিদের বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে, তাদের অবশ্যই বিচারের আওতায় হবে।

(কেএনআই/এএস/জুলাই ০২, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

২৮ অক্টোবর ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test