E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শিরোনাম:

জনবল কাঠামো পুনর্বহালের দাবিতে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির প্রশাসনিক ভবন অবরোধ

২০১৪ এপ্রিল ২২ ১৮:৩৩:১০
জনবল কাঠামো পুনর্বহালের দাবিতে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির প্রশাসনিক ভবন অবরোধ

দিনাজপুর প্রতিনিধি : নতুন জনবল কাঠামো বাতিল করে পূর্বের জনবল কাঠামো পুনর্বহালের দাবিতে মঙ্গলবার দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লার খনির প্রশাসনিক ভবন অবরোধ করেছে খনির কর্মরত শ্রমিকরা। একই সাথে তারা প্রশাসনিক ভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। এর ফলে প্রশাসনিক ভবনে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে এবং বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে খনির প্রশাসনিক ভবন। বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিমিটেড শ্রমিক ইউনিয়নের ব্যানারে শ্রমিকরা এই আন্দোলন শুরু করে।

নতুন জনবল কাঠামো বাতিল করে পুর্বের জনবল কাঠামো পুনর্বহালের দাবিতে বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিমিটেড শ্রমিক ইউনিয়ন গত ২০ এপ্রিল থেকে আন্দোলন শুরু করে। ২০ এপ্রিল তারা বিক্ষোভ সমাবেশ করে খনি কর্তৃপক্ষকে সমস্যা নিরসনের জন্য ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেয়। এই ৪৮ ঘন্টা সময় শেষ হতে না হতেই শ্রমিকরা আজ মঙ্গলবার আবার বিক্ষোভ শুরু করে। এক পর্যায়ে বিকেলে তারা বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির প্রধান গেটে অবস্থান নিয়ে অবরোধ শুরু করে। অবরোধের ফলে খনির এলাকায় কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। একই সাথে বিকেলে শ্রমিকরা খনির প্রশাসনিক ভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। ফলে বিদ্যুৎ বিহীন অবস্থায় রয়েছে খনির প্রশাসনিক ভবন।
বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আমিনুজ্জামান এ তথ্য স্বীকার করে বলেন, শ্রমিকরা চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অধীনে কর্মরত। কিন্তু সম্প্রতি যে জনবল কাঠামো তৈরি করা হয়েছে তা বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানী লিমিটেডের। এরপরও আলোচনার মাধ্যমেই সব সমস্যরার সমাধান সম্ভব বলে জানান খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক। ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিনুজ্জামান জানান, আন্দোলনরত শ্রমিকরা প্রশাসনিক ভবনের সিসি ক্যামেরাসহ অফিসের জানালার কাঁচ ভাংচুর করেছে।
এদিকে বড়পুকুরিয়া কোলা মাইনিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ওয়াজেদ আলী বলেন, ২০০০ সালের জনবল কাঠামো অনুযায়ী বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে ২ হাজার ৬৭৪ জন শ্রমিক কাজ করে আসছে। কিন্তু চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে খনি কর্তৃপক্ষ নতুন জনবল কাঠামো ঘোষনা করে। নতুন এই জনবল কাঠামোতে মাত্র ৭৩৮ জন শ্রমিক নিয়োগের নীতিমালা করা হয়েছে। এতে প্রায় ২ হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে পড়বে বলে জানান তিনি।
শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন, দাবি আদায় না হওয়ায় তাদের অবরোধ কর্মসূচী চলবে এবং বুধবার বিকেল ৪টায় আরও বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে।
(এটি/এএস/এপ্রিল ২২, ২০১৪)










পাঠকের মতামত:

২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test