E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

কুলিয়ারচরে চাচার বাগান কেটে ফেলার অভিযোগ ভাতিজিদের বিরুদ্ধে

২০২১ আগস্ট ৩০ ১৫:৪২:৪৯
কুলিয়ারচরে চাচার বাগান কেটে ফেলার অভিযোগ ভাতিজিদের বিরুদ্ধে

সোহেল সাশ্রু, কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে দলবল নিয়ে চাচার বাড়িতে হামলা করে বিভিন্ন গাছের বাগান কেটে মাটির সাথে মিশিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ভাতিজিদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৪ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার উছমানপুর ইউনিয়নের কোনাপাড়া গ্রামের মো. আলাল উদ্দিনের বাড়িতে।

কোনাপাড়া গ্রামের মৃত নাফুছ আলীর পুত্র মো. আলাল উদ্দিন (৬০) অভিযোগ করে বলেন, ১৯৯১ সালে তার ছোট ভাই মো. সুলাইমান ওরুফে জামাল উদ্দিন স্ত্রী মোছা. শরীফা আক্তারকে গর্ভবতী অবস্থায় ও শিশু কন্যা রুনা আক্তারকে রেখে সৌদি আরবে মারা যায়। জামাল উদ্দিন মারা যাওয়ার পর শরীফার গর্ভের মেয়ে সন্তান প্রসব হয়। নাম রাখে লায়লা আক্তার রীনা। স্বামী মারা যাওয়ার প্রায় এক বছর পর শরীফা আক্তার তার দুই মাসের ছোট মেয়ে লায়লা আক্তার রীনাসহ বড় মেয়ে রুনা আক্তারকে ঘুমের মধ্যে রেখে রাতের আধারে তার ননদের স্বামী কোনাপাড়া গ্রামের মো. হানিফ মিয়ার সাথে চলে গিয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সেখানেই সংসার করতে থাকে। পিতা মাতা হারা হয়ে এতিম দুই শিশু কন্যার কান্নার শব্দ পেয়ে চাচা আলাল উদ্দিন রাতেই মৃত ভাইয়ের ঘরে গিয়ে দুই ভাতিজিকে কোলে তুলে নেয়।

এরপর আদালতের অনুমতি নিয়ে দুই শিশুর অভিভাবক হয়ে তাদের লালন পালন করে লেখাপড়া শিখিয়ে ২০০৮ সালে বড় ভাতিজি রুনা আক্তারকে কুলিয়ারচর পৌর এলাকার সাদিরখারকান্দি গ্রামের রাজু মিয়ার সাথে বিবাহ দেয়। এর দুই বছর পর ২০১০ সালে ছোট ভাতিজি লায়লা আক্তার রীনাকে পার্শ্ববর্তী বেলাব উপজেলার পোড়াদিয়া গ্রামের নিটুল মিয়ার সাথে বিবাহ দেয়। এছাড়া জন্মদাত্রী মা, দুই ভাতিজিসহ পালিয়ে যাওয়া ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে তাদের হিস্যা অনুযায়ী পাওনাকৃত সম্পত্তি বুঝিয়ে দেন।

আলাল উদ্দিনের আধাপাগল মা আনোয়ারা বেগম হিস্যা অনুযায়ী তার পাওনাকৃত ৪০ শতাংশ ভূমির মধ্যে ১৯৯৪ সালে গয়েশপুরের রফিকের নিকট ২৫ শতাংশ, কোনাপাড়ার শুক্কুর আলীর নিকট ১০ শতাংশ ও মেয়ের স্বামী হানিফ মিয়ার নিকট ১৫ শতাংশ ভূমি বিক্রি করে বিভিন্ন মাজারে মাজারে দিনাতিপাত করতে থাকে। পাওনার চেয়ে আরো ৫ শতাংশ ভূমি অতিরিক্ত লিখে দিয়ে ক্রেতাদের মাঝে সম্পত্তির দখল বুঝিয়ে দেয় তার মা। ছোট ভাইয়ের পালিয়ে যাওয়া স্ত্রী শরীফা আক্তার বিভিন্ন কৌশলে গত ২২ আগস্ট রোববার আধাপাগল শ্বাশুড়িকে (আলাল উদ্দিনের মাকে) ভুল বুঝিয়ে শ্বাশুড়ির বিক্রয়কৃত সম্পত্তি দুই মেয়ের নামে আবার একটি হেবা দলিলের মাধ্যমে লিখে নেয়।

এর দুই দিন পর শরীফা আক্তার, তার দুই মেয়ে (আলাল উদ্দিনে দুই ভাতিজি) রুনা আক্তার (২৭) ও লায়লা আক্তার রীনা গত ২৪ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে পার্শ্ববর্তী বাড়ির মো. সিরাজ মিয়া (৫৫) ও জালাল উদ্দিন (৫৫) দ্বয়ের নেতৃত্বে ১৫/১৬ জন লোকসহ দেশীয় অস্ত্রাদী নিয়ে আলাল উদ্দিনের বাড়িতে হামলা করে বাড়ির বাগানে রোপিত চায়না লিচু, কাজী পেয়ারা, কাগজী লেবু, এলাচি লেবু, বড়ই ও পেপে গাছসহ সবজি গাছ কেটে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি করে বাড়ির আঙ্গিনায় বেড়া দিয়ে অবৈধ ভাবে জায়গা দখলের চেষ্টা করে।

আলাল উদ্দিন দীর্ঘ শ্বাস ফেলে বলেন, পিতৃ-মাতৃ হারা দুই ভাতিজিকে লালন পালন করে বড় করে লেখাপড়া শিখিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে দিয়ে অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করে আজ এই প্রতিদান পেলাম। তিনি এ ঘটনার জন্য সরকারের নিকট সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন।

(এস/এসপি/আগস্ট ৩০, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

২১ অক্টোবর ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test