E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

বাঁশের বাঁধ দিয়ে নদী দখলে নিয়ে থামছেনা মাছ ধরা

২০২১ সেপ্টেম্বর ১৬ ১৫:৩৬:৩৬
বাঁশের বাঁধ দিয়ে নদী দখলে নিয়ে থামছেনা মাছ ধরা

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা, কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) : বাঁশের বাঁধ দিয়ে নদী দখলে নিয়ে নদীতে থামছেনা মাছ ধরার কাজ। পানির গতি প্রবাহ রোধ করে নদীতে বাঁধ অপসারন করতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেও থামানো যাচ্ছে না নদীতে বাঁধ দিয়ে মাছ ধরার কাজ। এতে দিন দিনই সাধারন মানুষ নদী বা মুক্ত জলাশয় থেকে ছোট ছোট জাল ও বরশি দিয়েও মাছ ধরতে পারছেননা।

কেন্দুয়া উপজেলায় উল্লেখযোগ্য ৭টি নদীর মধ্যে রয়েছে সুতি সাইডুলি, পাটেশ্বরী, পাটকুরা, সুতি, রাজি বা রাজ রাজেশ্বরী, বেতাই, কৈজানি সিংগুয়া নদী। একটি প্রভাবশালী অমৎস্যজীবী মহল গোপন আতাত করে সবকটি নদীতে বাঁেশর বাঁধ দিয়ে পানির গতি প্রবাহ রোধ করে সারা বছরই মাছ ধরছে। এছাড়া নদীর কিনারাগুলোতে অবৈধ দখলদারদের কবলে থাকায় আস্তে আস্তে তারা নদী ভরাট করে ফসল আবাদ করছে।

কেন্দুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নূরুল ইসলাম জানান, পরিবেশ রক্ষায় আমাদের নদীগুলিকে দখলদারদের কবল থেকে রক্ষা করতে হবে। এই নদীগুলো এখনই রক্ষা না করলে একদিন হয়তবা মরা নদীতে পরিনত হয়ে নদীর স্মৃতি চিহ্নই থাকবেনা।

তিনি উল্লেখ করে বলেন, কেন্দুয়া উপজেলা সদরের খাদ্য গুদাম সংলগ্ন রাজি নদী থেকে কয়েকবছর আগেও ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও ট্রলার মদন, মোহনগঞ্জ, খালিয়াজুড়ি, তাড়াইল, ইটনা, মিটামইন, অষ্টগ্রাম, ধর্মপাশা, সিলেট, সুনামগঞ্জ পর্যন্ত নৌযানে যাত্রী সাধারন ও পন্য পরিবহন হত। কিন্তু এই নদীর উপর অপরিকল্পিত ব্রীজ কালভার্ট নির্মান এবং নদী দখল করে ভরাট করার ফলে এখন আর এই নদীতে নৌকা চলাচলই বন্ধ রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মইন উদ্দিন খন্দকার বলেন, এসব নদী রক্ষায় আমরা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে নদীর বাঁধ অপসারন করছি। কিন্তু এর পরও নদীতে বাঁশের বাঁধ দিয়ে মাছ ধরা থামানো যাচ্ছেনা । তিনি সমাজের সকল শ্রেনী পেশার মানষকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বলেন, নদী আমাদের প্রাকৃতিক অমূল্য সম্পদ। এই নদী বাঁচিয়ে রাখতে না পারলে একদিন পরিবেশের চরম বিপর্যয় ঘটবে। নদীতে বাঁশ দিয়ে বাঁধ অপসারন কার্যক্রম ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু থামানো যাচ্ছেনা। তিনিও সমাজের সকল মানুষকে এই বাঁধ অপসারন করে নদীর গতি প্রবাহ ঠিক রাখতে সকলকে এগিয়ে আসার দাবী জানান।

(এসবি/এসপি/সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

২১ অক্টোবর ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test