E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি, দুর্ভোগ কমেনি বানভাসীদের

২০২২ জুন ২৩ ১৯:১৫:২৫
কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি, দুর্ভোগ কমেনি বানভাসীদের

প্রহলাদ মন্ডল সৈকত, কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে নদ-নদীর পানি হ্রাস পেতে  শুরু করায় জলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির সামান্য উন্নতি হয়েছে। তব ব্রহ্মপুত্র ও ধরলার পানি এখনও বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় বন্যার পানিতে তলিয়ে আছে চরাঞ্চল ও নিম্াঞ্চলর ঘর-বাড়ি। এতে দূর্ভোগ আরো বাড়ছে বানভাসীদর। দীর্ঘ সময় ধরে পানিবন্দি থাকায় শুকনা খাবার ও বিশুদ্ধ পানির চরম সংকটে পড়েছে দুর্গতরা।

এদিকে চারণভূমি তলিয়ে থাকায় ও গো-খাদ্য নষ্ট হয়ে যাওয়ায় নিজেদের খাবারের পাশাপাশি গবাদি পশু নিয়েও বিপাকে পড়েছেন তারা।

এবারের বন্যায় জেলার ৫০টি ইউনিয়নের ২শ ৮৫টি গ্রাম প্লাাবিত হয়। সরকারী হিসেবে এত পানিবন্দি হয়ে পড়ে সোয়া লাখ মানুষ।

বন্যা কবলিত এলাকায় ২শ ৯৪ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৩০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এখনও বন্ধ রয়েছে পাঠদান।
কৃষি বিভাগের তথ্যমত জেলায় ১৪ হাজার হক্টর জমির চিনা, কাউন, পটল, মরিচসহ বিভিন্ন সবজি ক্ষত ও পাট এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধর বন্যার পানিতে নিমজ্জিত থাকায় তা নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরর উপ-পরিচালক আব্দুর রশিদ জেলায় ১৪ হাজার হেক্টর জমির ফসল তলিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা কালিপদ রায় জানান, জেলায় ১১শ ৫৭টি মাছের খামার ভেসে যায়। এত ১১শ ৬৩জন মাছ চাষী ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতির পরমান ১শ ৮০ কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার(২৩জুন) কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, বন্যা কবলিতদের জন্য ৫৩৮ মেট্রিক টন চাল, ৩৬ লাখ ৫০ হাজার নগদ টাকা, ১ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার, ১৮ লাখ ৯৫ হাজার টাকার শিশু খাদ্য ও ১৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকা গো-খাদ্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যা বিতরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

(পিএস/এসপি/জুন ২৩, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

২৬ জুন ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test