E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

রং তুলির আঁচড়ে সাজছে দেবী দুর্গা

২০২২ সেপ্টেম্বর ২৯ ১৬:৩৬:২৫
রং তুলির আঁচড়ে সাজছে দেবী দুর্গা

দীপক চন্দ্র পাল, ধামরাই : আগামী ১ লা অক্টোবর মহা ষষ্টি পুজার মধ্য দিয়ে শুরু হবে হিন্দু সম্প্রদায়েরর অন্যতম প্রধান ধর্মীয় শারদীয়া উৎসব।ধর্মীয় রীতি মতে এবার “দেবীর দোলায় আগমন ও দেবীর গজে গমন”। ষড় ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। ঋতু চক্রের বদলের পালায় শরৎ ঋতু আগমন। এই আগমনী বার্তার  মধ্য দিয়ে দেবী দূর্গার ধরা ধামে আগমনী র্বাতা নিয়ে ভক্তদের মাঝে উপনিত হবেন। আর এর স্রোতধারায় বিপদ নাশিনী মা দূর্গা পুজিত হবেন ভক্ত কুলে। আগামী পহেলা অক্টোবর শনিবার ষষ্টী পুজার মধ্য দিয়ে দেবীর বোধন, আমন্ত্রন ও অধিবাস দিয়ে শুরু হবে এবারের শারদীয় উৎসব। সরকার প্রদত্ত ৫০০ কেজি করে  প্রতি মন্দিরে চাল বিতরন করা হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

এবার ধামরাই উপজেলার একটি পৌর সভা ও ষোল টি ইউপির বিভিন্ন স্থানে ২০৪ টি স্থায়ী ও অস্থায়ী মন্দিরে শারদীয়া উৎসবের আয়োজনে শিল্পী পূজারীরা শেষ মূর্হুতে প্রতিমা রং তুলির কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এবার আমতা ইউপিতে সব রতবন নামে মায়ের নয়টি মূর্তি গড়ে

বাঁশ দিয়ে অবকামো তৈরী, প্রতিমা শিল্পীরা তাদের সহ কর্মীদের দিয়ে মাটি নরম ও তৈরী করার পর প্রয়োজনীয় সকল প্রস্তুতি ও মূর্তি গড়ার কাজ শেষ করে শিল্পীরা রং তুলির কাজও শেষ করে এখন মন্ডপ নির্মান ও সাজ স্বজ্জার কাজে ব্যন্ত ।

আগামী ১ লা অক্টোবরের আগে সকল সাজ-সজ্জার কাজ শেষ হয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা শিল্পীদের। আয়োজক পূজারী ও শিল্পী ও প্রশাসন প্রত্যাশা করছে প্রতিবারের মতোই এবারো সুন্দর ও শান্তিপুন্র্ ভাবে শারদীয় উৎসব সম্পন্ন হবে।

ধামরাইয়ের বিশ্বকর্মা পুজারীদের অন্যতম নেতা ও শিল্পী সুকান্ত বণিক বলেন, শিল্পীরা এখন সুক্ষ সুক্ষ কাজ গুলি করছে। রং তুলির কাজও শেষ পর্য়ায়ে। পুজা উৎসবকে কেন্দ্র করে ঘরে ঘরে উৎসব আমেজ বিরাজ করছে বলেন।

শিল্পী নিখিল পাল বলেন তিনি এবার চারটি প্রতিমার কাজ করছেন। ধামরাইয়ের সবচেয়ে বড় আয়োজন মাধব মন্দির সংলগ্ন দূর্গা মন্দিরে প্রতিমা তৈরী করছেন। এখান থেকে প্রতিটি টায় তিনি ৫০ হাজার টাকা মজুরি পাবেন। প্রতিমা তৈরীরর মুজুড়ি দিয়ে বছরের অধিকাংশ মাস সংসারের খরচ চালান বলেন।

শিল্পী দিপংকর দাশ বলেন করোনার কারনে তিন বছর তাদের প্রতিমা তৈরী থেকে তেমন আয় হয়নি।এবার পরিবেশ ভালো থাকায় তিনি ১০ টি প্রতিমার অর্ডার পেয়েছেন।

পুজারী ডাঃ অজিত বসাক বলেন করোনার কারনে বিগত ৩ বছর,আনন্দ উৎনব মুখরতা ছিল না।এবার দেশের পরিবেশ পরিস্থিতি ভালো ও করোনার প্রভাব ম্লান হয়েছে, এবার মহ্ধূামধামে দূর্গা পুজা উৎসব পালন করতে পারবো বলেন।

ধামরাই উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক পুজারী নন্দ গোপাল সেন বলেন, আগামী ১ লা অক্টোবর মহা ষষ্টি পুজার মধ্য দিয়ে শুরু হবে হিন্দু সম্প্রদায়েরর অন্যতম প্রধান ধর্মীয় শারদীয়া উৎসব। ধর্মীয় রীতি মতে এবার “দেবীর গজে আগমন ও দেবীর নৌকায় গমন” হবে এবার। এবার ধামরাইয়ে ২০৪ টি দূর্গা মন্দিরে শারদীয়া উৎসবে আয়োজন হচ্ছে।

প্রশাসন থেকে থেকে সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিবেশ নিয়ন্ত্রনে রাখতে পুজারী নের্তৃবৃন্দদের সাথে পুলিশ প্রশাসনের উধ্বতন কর্মর্তার মতবিনিময় করেছেন। পৌর এলাকার বিভিন্ন মন্দিরে ৪১ টি পূজার আয়োজন রয়েছে।

ধামরাই থানার অফিসার্স ইনাজ মোঃ আতিকুর রহমান বলেন শারদীয়া দূর্গা পূজা উপলক্ষে প্রশাসনিক প্রয়োজনী সব ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। ঢাকার বৃহৎ উপজেলা ধামরাই। এবার ধামরাইয়ে ২০৪ টি মন্দিরে দূর্গা পুজা হবে। বাংলাদেশের অনেক জেলাতেও এতো পুজার আয়োজন হয়না। পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইনর্শংখলা বাহিনীর সাথে আনসার, র‌্যাব ফোর্স কড়া নজর দারী করছে। বিভিন্ন স্তরের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পুজা উদযাপন কমিটির সাথে ঢাকার পুলিশ সুপারের মত বিনিময় সভা হয়েছে। নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কিছু দিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে মন্দিরে, মন্দিরে সিসিি ক্যামেরা লাগানো সহ প্রতি বারের মতো এবারো শান্তিপূর্ন ভাবে পূজা উৎসব সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন ধামরাইয়ের ওসি আতিকুর রহমান।

এ ব্যাপারে ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মোম্মামদ হাই জকী বলেন, পুজারীদের সাথে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মতবিনিময় সভা জয়েছে।

এই পূজা উপলক্ষে প্রশাসনিক প্রয়োজনী সকল ব্যবস্থা গ্রহর করা হবে। তিনি এ বিষয়ে সকলের সার্বিক সহযোগিা প্রত্যাশা করেন। তিনি আরো বলেন প্রজায় সরকার প্রদত্ত ৫০০ কেজি প্রতি মন্দিরে চাল বিতরণ করা হয়েছে।

(ডিসিপি/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

২৮ নভেম্বর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test