E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

বিপদসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার ওপরে তিস্তার পানি, রাজারহাাটে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

২০২৩ আগস্ট ২৬ ১৬:৩৪:৩১
বিপদসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার ওপরে তিস্তার পানি, রাজারহাাটে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

প্রহলাদ মন্ডল সৈকত, রাজারহাট : প্রবল বৃষ্টি ও উজানের ঢলে কুড়িগ্রামের রাজারহাটে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। কাউনিয়া পয়েন্টে তিস্তা ব্রীজ সংলগ্ন বিপদসীমার ৪৫ডিগ্রী সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছেন। নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় চরাঞ্চলসহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে পড়ায় বন্যার আশংকায় দিন কাটাচ্ছেন নদী পাড়ের মানুষজন। এদিকে খবর পেয়ে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরে তাসনিম তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি এবং বন্যা ও ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি অর্ধশতাধিক পরিবারের মাঝে শুকনা খাবার হিসেবে চিড়া-মুড়ি, গুড় বিতরণ করেছেন।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, আজ শনিবার দুপুর ১২টায় তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে কাউনিয়া পয়েন্ট বিপদসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী অববাহিকার নিম্নাঞ্চল ও নিম্ন চরাঞ্চলগুলোতে বন্যার পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে। এরইমধ্যে ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের চর খিতাবখাঁ, বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের চর বিদ্যানন্দ, চর পাড়ামৌলা, চর তৈয়ব খাঁ তিস্তা নদীর পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে।

এদিকে নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের গতিয়াসাম, চর খিতাবখা, বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের চতুরা, রামহরি ও কালিরহাট এলাকায় দেখা দিয়েছে তিস্তা নদী ভাঙ্গন।
তিস্তা পাড়ের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হিরা বলেন, তিস্তা নদী পানি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। তিস্তার বাম তীরে ভাঙন চলছে। এভাবে ভাঙন ভব্যাহত থাকলে তো অনেকে বাড়ি ঘর জমিজমা হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাবে। ইতিমধ্যে অনেক মানুষ ভিটেমাটি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে গেছে।

রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরে তাসনিম বলেন, তিস্তার পানি বাড়ছে। মাঝের চরে পানি উঠতেছে। খিতাবখাঁ, গতিয়াসাম এবং সরিষাবাড়ি এলাকায় ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। খিতাব খাঁ প্রাইমারি স্কুলটি হুমকীর মুখে রয়েছে। তাৎক্ষনিকভাবে অর্ধশতাধিক পরিবারের মাঝে শুকনা খবার দেয়া হয়েছে। এছাড়া ঘড়িয়ালডাঙ্গা ও বিদ্যানন্দ ইউনিয়নে ৬টন চাল বিতরনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, কয়েক দিনের বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে তিস্তার পানি আবারও বিপদসীমা উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আগামী চব্বিশ ঘন্টায় আরও অবনতি হওয়ার আশংকা রয়েছে।

(পিএস/এসপি/আগস্ট ২৬, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

০২ মার্চ ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test