E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

শিরোনাম:

নবীনগরের কনিকাড়ায় রাতভর ‘মলয়া’ গানের আসরে হাজারো দর্শক

২০২৩ নভেম্বর ০৮ ১৮:০২:১৭
নবীনগরের কনিকাড়ায় রাতভর ‘মলয়া’ গানের আসরে হাজারো দর্শক

বিশেষ প্রতিনিধি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় বিশ্বখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ 'সুরম্রাট' ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর জন্মভূমি, সঙ্গীতের 'পূণ্যভূমি' খ্যাত শিবপুর। সেই শিবপুরের কনিকাড়া গ্রামে গতকাল ৭ নভেম্বর মঙ্গলবার রাতভর হাজারো দর্শকের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হল জমজমাট এক 'মলয়া' গানের আসর।

‘মলয়া'র স্রষ্টা এ উপমহাদেশের প্রখ্যাত আধ্যাত্মিক সাধক কবি, নবীনগরের সাতমোড়া গ্রামে জন্ম নেয়া মহর্ষি মনোমোহন দত্ত স্মরণে কনিকাড়া ফুটবল খেলার মাঠে 'মলয়া' গানের এই আকর্ষণীয় ও প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়।

রাত ৯-টা থেকে ভোর রাত পর্যন্ত প্রায় আটঘন্টা ধরে চলা এই জমজমাট মলয়া গানের আসরে সঙ্গীত পরিবেশন করেন দেশের দুই প্রখ্যাত বাউল শিল্পী পাগল রফিক সরকার ও মুক্তা সরকার।

মহর্ষির প্রপৌত্র, সাতমোড়া আনন্দ আশ্রম কমিটির অন্যতম নীতি নির্ধারক, মলয়া গানের গবেষক ও বিশ্লেষক ডা. স্বরূপ রতন দত্ত দয়াল মণি এই সাড়া জাগানো গানের জলসার উদ্বোধন করেন।

এ সময় তাঁর পাশে মঞ্চে অনুষ্ঠানে আগত আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, সাবেক ছাত্রনেতা মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, নবীনগর সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি মোশাররফ হোসেন সরকার, জেলা পরিষদের সদস্য (প্যানেল মেয়র), সাবেক ছাত্রনেতা নাছির উদ্দিন, নবীনগর পৌরসভার কাউন্সিলর গণিচাঁন মকসুদ, নবীনগর বাজার কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হক রাশেদ, সমবায় মার্কেটের সেক্রেটারী, সিটিভির সম্পাদক রবীন সাইফ, মহর্ষির ভক্ত ও দয়াময় নামের প্রচারক দেবাশীষ দাস সোহেলসহ বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই আমন্ত্রিত অতিথিরা মহর্ষি মনোমোহনের জীবন ও সাধনাসহ মহর্ষি রচিত 'মলয়া' গানের বিভিন্ন দিক নিয়ে সারগর্ভ আলোকপাত করেন। এরপরই শুরু হয় 'মলয়া' গানের প্রাণবন্ত আসর। পাল্টাপাল্টি এই জমজমাট গানের আসরে দেশের দুই বিশিষ্ট বাউল শিল্পীর কণ্ঠে মরমি সঙ্গীত খ্যাত 'মলয়া' গান শুনতে দূর দূরান্ত থেকে হাজারো মলয়া ভক্ত ও 'দয়াময়' অনুসারী ছাড়াও সাধারণ স্রোতারা যোগ দেন। ফলে অনুষ্ঠানস্থলে গানপ্রেমি সহস্রাধিক মানুষের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা যায়।

অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা ও আয়োজক, কনিকাড়া গ্রামের দুই মহর্ষি ভক্ত এ প্রেমিক, 'দয়াময়' নামের অনুসারী স্থানীয় সোহেল রানা ও শাহাবুদ্দিন জানান, 'সবার উপর মানুষ সত্য, তাহার উপর নাই' এ মূলমন্ত্রের ধারক, অসাম্প্রদায়িক চেতনার মূর্ত প্রতীক হলেন, এ উপমহাদেশের প্রখ্যাত মরমি সঙ্গীত 'মলয়া'র রচয়িতা সাতমোড়ার সাধক কবি মহর্ষি মনোমোহন। মূলত আমাদের এই গুরুর আদর্শ ও দর্শনকে ছড়িয়ে দিতেই আমরা তাঁর রচিত মহামূল্যবান বাণী সমৃদ্ধ মলয়া গান নিয়ে রাতভর এরকম একটি গানের জলসার আয়োজন করেছি। যা আগামিতেও আমরা অব্যাহত রাখবো।'

দেশের এরকম একটি অস্থিতিশীল পরিবেশের মধ্যেও মলয়া গানের এ জলসায় তাদের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে দূর দূরান্ত থেকে আমন্ত্রিত অতিথিসহ যারা যোগ দিয়েছেন, তাদের সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন এই দুই আয়োজক।

প্রায় আট ঘন্টা ধরে চলা জাঁকজমক পুরো এই অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনায় ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা, কনিকাড়া গ্রামের সোহরাওয়ার্দী চৌধুরী সরু।

প্রসঙ্গত, মহর্ষি রচিত পাঁচ শতাধিক মলয়া গানে সুরারোপ করেছেন, মহর্ষির অন্যতম ভাবশিষ্য, বিশ্বখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর বড় ভাই ও তাঁর সঙ্গীতগুরু বংশীবাদক ফকিরতাপস আফতাব উদ্দিন খাঁ।

(জিডি/এসপি/নভেম্বর ০৮, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test