E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

কিশোরগঞ্জ-৬

নৌকার প্রার্থী পাপনের মনোনয়ন জমা দেয়া উপলক্ষে দোয়া মাহফিল

২০২৩ নভেম্বর ২৪ ১৮:০০:২৫
নৌকার প্রার্থী পাপনের মনোনয়ন জমা দেয়া উপলক্ষে দোয়া মাহফিল

সোহেল সাশ্রু, কিশোরগঞ্জ : আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-৬ (ভৈরব-কুলিয়ারচর) আসনে নৌকার একমাত্র প্রার্থী বর্তমান এমপি ও বিসিবি সভাপতি আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপনের পক্ষ থেকে আগামী ২৯ নভেম্বর মনোনয়ন জমা দেয়া উপলক্ষে দোয়া মাহফিল আয়োজন করা হয়েছে। আজ শুক্রবার বাদ জুম্মা পৌর শহরের শাহী মসজিদে জুম্মা নামাজ শেষে এই দোয়া মাহফিলে অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী এমপি পাপনের উপস্থিতিতে দোয়া চেয়েছেন ভৈরব উপজেলা আওয়ামী লীগ উপদেষ্ঠা মন্ডলির সদস্য ও ভৈরব চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আলহাজ্ব হুমায়ুন কবীর।

এসময় উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সেন্টু, পৌর মেয়র ইফতেখার হোসেন বেনু, প্রয়াত রাষ্ট্রপতির একান্ত সচিব অধ্যাপক লুৎফুর রহমান ফুলু, সাখাওয়াত উল্লাহ, আওয়ামী লীগ সভাপতি এসএম বাকী বিল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ উপস্থিত ছিলেন।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। কিশোরগঞ্জ-৬ (ভৈরব-কুলিয়ারচর) আসনে একাধিক প্রার্থী না থাকায় প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের ছেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনই নৌকা প্রতীকে নির্বাচনের অনুমতি পেতে যাচ্ছেন। তবে ভৈরব ও কুলিয়ারচরে দুইজন ব্যক্তির আওয়ামীলীগের মনোনয়ন সংগ্রহের কথা শুনা গেলেও তারা কেউই নৌকা পেতে মনোনয়ন জমা দেননি। এদিকে ভৈরব-কুলিয়ারচরের আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা এ বিষয়ে কিছুই জানেনা বলে দাবী করেছেন।

জানা যায়, আসন্ন সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের মধ্যে কম সংখ্যক আসনেই একক প্রার্থী রয়েছে। তবে একক প্রার্থীদের মধ্যে যে কয়টি আসন রয়েছে তারমধ্যে রয়েছে কিশোরগঞ্জ-৬ (ভৈরব-কুলিয়ারচর) আসনও। আসনটির জন্য আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। যেখানে সকল সংসদীয় আসনের প্রায় আসনের জন্য ফরম বিক্রি হয়েছে ১০টিরও বেশি।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কিশোরগঞ্জ-৬ আসনে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ছয়বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর ২০০৯ সালে উপ-নির্বাচনে এ আসনে তার একমাত্র ছেলে নাজমুল হাসান পাপন বিজয়ী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এর পর ২০১৪ সালে ও ২০১৮ সালে তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ভৈরব-কুলিয়ারচরের অবহেলিত ও উন্নয়নবঞ্চিত এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নের প্রধান রূপকারই হচ্ছেন প্রয়াত জিল্লুর রহমান ও তার ছেলে পাপন।

পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ বলেন, ভৈরব-কুলিয়ারচর আসনে নৌকার বিকল্প নেই। ঘাঁটি। প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান টানা ছয়বার এ আসন থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। ষষ্ঠবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে দেশের ১৯তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন। তারপর থেকে তারই সন্তান বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন টানা তিনবার নির্বাচিত হয়ে ১৫ বছরে (ভৈরব-কুলিয়ারচর) ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এ আসনে বিএনপিসহ যে কোন দলের প্রার্থী থাকলেও পাপন সাহেবই নিবাচিত হবেন।

পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি এসএম বাকী বিল্লাহ বলেন, ভৈরব ও কুলিয়ারচরবাসীর একমাত্র আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন ফর্ম কিনে জমা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। মনোয়নযুদ্ধে তার কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই এবং ভবিষ্যতেও থাকবে না কারণ তিনি সাবেক রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ও শহীদ আইভী রহমান দম্পতির একমাত্র ছেলে। আসন্ন সংসদ নির্বাচনে ভোটাররা বিপুল ভোটে নৌকা মার্কায় এ আসন থেকে তাঁকেই বিজয়ী করবেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সায়দুল্লাহ মিয়া বলেন, ভৈরব-কুলিয়ারচরবাসী প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের পরিবারের প্রতি ভালোবাসা ও আস্থা আছে। ফলে রাষ্ট্রপতির ছেলে পাপনের বিরুদ্ধে দলীয় মনোনয়ন যুদ্ধে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই। আসনটিতে শুধুমাত্র একজনই দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে ফরম কিনে জমা দিয়েছেন। আশা করছি আসন্ন সংসদ নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটে জয়ী হবেন।

(এসএস/এসপি/নভেম্বর ২৪, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

০৪ মার্চ ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test