E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

দিগন্ত শিল্পীগোষ্ঠীর পরিচিতি সভা

‘সাহিত্য-সংস্কৃতি হারিয়ে ফেললে নিজেদেরকেও হারিয়ে ফেলবো’

২০২৩ ডিসেম্বর ০২ ১৭:১৩:১৫
‘সাহিত্য-সংস্কৃতি হারিয়ে ফেললে নিজেদেরকেও হারিয়ে ফেলবো’

শাহ্ আলম শাহী, দিনাজপুর : অনাড়ম্বর ভাবে অনুষ্ঠিত হলো দিনাজপুরের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন চাউলিয়াপট্রি-পাহাড়পুর মিলনায়তন সমিতি, দিগন্ত শিল্পীগোষ্ঠী ও হামিদুর রহমান পাঠাগার সদস্য-কর্মকর্তা বৃন্দের পরিচিতি সভা।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় সংগঠনের নিজস্ব হলরুমে এ পরিচিতি সভায় সভাপতিত্ব করেন, সংগঠনের কার্যনির্বাহী আহ্বায়ক কমিটি'র আহবায়ক বিশিষ্ট সংগঠক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এস এম খালেকুজ্জামান রাজু।সংগঠনের অন্যতম কার্যনির্বাহী সদস্য গণমাধ্যম ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শাহ্ আলম শাহী'র প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কার্যনির্বাহী আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য ফারুক গজনবী,বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী ও সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হাসান আলী শাহ্,মোকসেদ আলী, যুব সংগঠক আবু রইচ ডিয়ার ও সমাজসেবক শামীম কবিরসহ অন্যরা।

সভাপতি'র বক্তব্যে এস এম খালেকুজ্জামান রাজু বলেন, 'আমরা যদি আমাদের সাহিত্য- সংস্কৃতি হারিয়ে ফেলি তাহলে আমরা নিজেদেরকে হারিয়ে ফেলবো। একটি দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য সাংস্কৃতিক উন্নয়ন অনুস্বীকার্য। একটি দেশের সংস্কৃতি যত উন্নত সে দেশ তত উন্নত। উন্নত দেশের কাতারে সামিল হতে গেলে আমাদের সংস্কৃতিকে আরও সমৃদ্ধ করতে হবে। এই সংগঠনের ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে মানবতা সেবার পাশাপাশি মনুষ্যত্ব বিকাশে শিল্প- সাংস্কৃতিক চর্চার প্রসার ঘটাতে হবে। মাদকের কড়াল গ্রাস ও নৈতিক অধঃপতন থেকে ফিরিয়ে আনতে তরুন ও যুবসমাজকে ক্রীড়াঙ্গনে সম্পৃক্ত করতে হবে।'

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কার্যনির্বাহী আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য ফারুক গজনবী বলেন, 'অনেক ত্যাগ- তিতিক্ষা ও কষ্টের ফসল এই সংগঠন।এই সংগঠনের মাধ্যমে অনেকে তৈরি হয়েছে।আজ তারা জাতীয় পর্যায়ে নাম কুড়িয়েছে। এই সংগঠনের ঐতিহ্যকে ধরে রাখা বর্তমান প্রজন্মের কাজ।তারা ভালো কিছু করতে চাইলে আমরা সহায়তা করবো।'

বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী ও সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হাসান আলী শাহ্ বলেন, 'আমরা আবার নতুন করে শুরু করতে চাই। সৃষ্টি করতে চাই, আরো নতুনত্বের। মাসিক শ্রোতার আসরের মাধ্যমে জাগ্রত করতে চাই-জাতির বিবেকের।'

আলোচনা শেষে অনুষ্ঠিত হয় ঘরোয়া পরিবেশে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সেই সাথে ছিলো রুচিসম্মত নাস্তার পাশাপাশি চা পান।

(এস/এসপি/ডিসেম্বর ০২, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test