E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

দল থেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে : নিক্সন চৌধুরী

২০২৩ ডিসেম্বর ০৪ ১৮:৫৮:১১
দল থেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে : নিক্সন চৌধুরী

দিলীপ চন্দ, ফরিদপুর : আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-৪ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী। দল (আওয়ামী লীগ) থেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে দুবারের নির্বাচিত হওয়া এই সংসদ সদস্য। 

আজ সোমবার বেলা ২টার দিকে ফরিদপুর-২ আসনের (ভাঙা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন) প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় দলীয় কোনো চাপ আছে কি না? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘গতকাল রোববার দল (আওয়ামী লীগ) জানিয়েছে কোনো বহিষ্কার ও ব্যবস্থা নেওয়া হবে না। আমাদের দল থেকেই তো বলে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। অতএব, আমরা উৎসাহিত হচ্ছি।’

গতকাল ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় দলটির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ফরিদপুর-১ আসনের মনোনীত প্রার্থী আবদুর রহমান জানান, দল থেকে যাঁরা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে ১৭ ডিসেম্বরের পরে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আবদুর রহমানের এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের দলের সেক্রেটারি ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেছেন যে তারা (স্বতন্ত্র প্রার্থী) যদি হেভিওয়েট প্রার্থীদের পরাজিত করে আসে তাহলে সাধুবাদ জানাব। এখন বিচ্ছিন্নভাবে ও নিজের সমস্যার জন্য যদি অন্য কোনো নেতা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে, সেটা তার ব্যক্তিগত স্টেটমেন্ট হতে পারে এবং ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য। ওনার (আবদুর রহমান) নিজের নির্বাচনী এলাকায়ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আছে। এখন উনি ওনার নিজের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের থামানোর জন্য বলেছে কি না—সেটা বলতে পারব না।’

হেভিওয়েট প্রার্থী প্রসঙ্গে আসনটিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কাজী জাফর উল্যাহর উদ্দেশে বলেন, ‘আমরা আসলে বুঝতে পারি না, হেভিওয়েট প্রার্থী বলতে কী বোঝায়। যে দুইবার-তিনবার পরাজিত হয়, সে কি হেভিওয়েট? হেভিওয়েট কি জনগণের নির্বাচিত ভোটে মাপা হয়? তারপরেও হেভিওয়েট হোক আর যে-ই হোক, জনগণ যাকে ভোট দেবে সেই নির্বাচিত হবে।’

এবারে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনটি থেকে আটজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তাঁদের মধ্যে সাতজনের মনোনয়ন বৈধ ও একজনের মনোনয়ন স্থগিত করেন রিটার্নিং অফিসার জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার।

বৈধ প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কাজী জাফর উল্যাহ, স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান চৌধুরী (নিক্সন), বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের প্রার্থী মাকসুদ আহমেদ মাওলা, জাকের পার্টির রবিউল ইসলাম, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির আলমগীর কবির ও বাংলাদেশ কংগ্রেসের নাজমুন নাহার।

এ ছাড়া জাকের পার্টির মো. আনোয়ার হোসেনের দাখিল করা মনোনয়নপত্রে আয়-ব্যয় বিবরণী না থাকায় স্থগিত রাখা হয় এবং বিকেল ৪টা পর্যন্ত তাঁকে সময় দেন রিটার্নিং অফিসার। বিকেল ৪টার ভেতর জমা না দিতে পারলে মনোনয়নপত্র বাতিল বলে ঘোষণা করা হবে বলে রিটার্নিং অফিসার জানান।

(ডিসি/এসপি/ডিসেম্বর ০৪, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

০২ মার্চ ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test