E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

শেষ হল গান্ধী আশ্রমের ‘আমার সাথে বাংলাদেশ’ প্রচারাভিযান

২০১৪ নভেম্বর ০৮ ১৮:২১:৫৫
শেষ হল গান্ধী আশ্রমের ‘আমার সাথে বাংলাদেশ’ প্রচারাভিযান

নোয়াখালী প্রতিনিধি : ‘সহিংতা রুখবো, শান্তির দেশ গড়বো- আমার সাথে বাংলাদেশ’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দেশব্যাপী জাতীয় প্রচারণার অংশ হিসেবে গান্ধী আশ্রম ট্রাস্ট’র উদ্যোগে আট দিনব্যাপী ব্যাপক কর্মসূচী আজ শনিবার শেষ হলো সাইকেল শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।

সাইকেল শোভাযাত্রাটি সকাল সাড়ে নয়টায় নোয়াখালী জিলা স্কুল থেকে শুরু হয়ে বেগমগঞ্জের রাজগঞ্জ আলাদী-নগর গ্রামে গিয়ে শেষ হয়। বেলা ১১টায় আলাদী নগর গ্রামে শান্তি-অহিংসা-সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ওপর এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে নোয়াখালী পুলিশ সুপার ইলিয়াছ শরীফ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবদুল কাদের, গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের পরিচালক রাহা নব কুমার, রাজগঞ্জ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ, প্রচারাভিযান সমন্বয়কারী নূরুল আলম মাসুদ প্রমুখ বক্তব্য দেন। স্থানীয়ভাবে জেলার নাগরিক সমাজ, গণমাধ্যম কর্মী, শিক্ষাবিদ, বুদ্ধিজীবী, পেশাজীবী, জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় জনগোষ্ঠী আলোচনায় সভায় অংশ নেন। আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীরা গান, নাচ ও খণ্ড নাটিকা পরিবশেন করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা হিংসা বিদ্বেষ ভুলে গিয়ে শান্তি ও সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। বক্তারা সকল ধরনের সহিংসতা ত্যাগ করে দেশের উন্নয়নে সকল ধর্মের মানুষের মিলিত অংশগ্রহণ ও সহাবস্থান নিশ্চিতের আশা ব্যাক্ত করেন।

মহাত্মা গান্ধীর জন্ম দিবস ও আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবসকে কেন্দ্র করে বিগত ০২ অক্টোবর থেকে ‘সহিংসতা রুখবো, শান্তির দেশ গড়বো’ এই স্লোগান নিয়ে আমার সাথে বাংলাদেশ নামক প্রাচারাভিযান শুরু করে গান্ধী আশ্রম ট্রাষ্ট। এই প্রচারাভিযানের মূল উদ্দেশ্য হল শান্তি-অহিংসা-সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বাংলাদেশকে একটি শান্তির দেশ হিসেবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংগঠন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যশনাল এই কর্মকাণ্ডকে সহায়তা করছে।

(জেএইচবি/এএস/নভেম্বর ০৮, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

১৯ জুন ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test