E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিল হৃদয়

২০২৪ ফেব্রুয়ারি ২৭ ১৪:২৯:২৭
বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিল হৃদয়

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা কেন্দ্রে সবার সাথে বসে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে নাইম হোসেন হৃদয় মোল্যা। মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) গোপালগঞ্জের  সরকারি মুকসুদপুর কলেজ কেন্দ্রে ধর্ম পরীক্ষা দিয়েছে ওই শিক্ষার্থী।  

পরীক্ষার্থী হৃদয় মোল্যা মুকসুদপুর উপজেলার বাঁশবাড়ীয়া ইউনিয়নের খাঞ্জাপুর গ্রামের মনিরুজ্জামান মোল্যার ছেলে। সোমবার রাতে গ্রামের বাড়িতে স্ট্রোক করে মনিরুজ্জামান মোল্যা চির ঘুমের দেশে চলে যান।

মঙ্গলবার দুপুরে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে মনিরুজ্জামান মোল্যার মরদেহ দাফন করা হয়।

পরীক্ষার্থী নাইম হোসেন হৃদয় মোল্যা বলেন, আমার বাবার স্বপ্ন ছিলো আমি বড় হয়ে বিসিএস ক্যাডার হবো। কিন্তু আমার বাবার সেই স্বপ্ন পূরণ হওয়ার আগেই তিনি না ফেরার দেশে চলে গেলেন। আমার বাবা দেখে যেতে পারলেন না আমার ভবিষ্যত। তাই আমি বাবার স্বপ্ন পূরণে আমি সচেষ্ট থাকব। উপার্জনক্ষম বাবাকে হারিয়ে আমার এ পথ আরো কঠিন হয়ে গেল।

ওই পরিক্ষার্থীর চাচা বাবুল মোল্যা বলেন, আমার ভাই মনিরুজ্জামান মোল্যা সোমবার রাতে স্ট্রোক করে নিজ বাড়িতেই ইন্তকাল করেন। ভাতিজার পরিক্ষা শেষ বাদ জোহর খাঞ্জাপুর গ্রামে জানাযা শেষে মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

কেন্দ্র সচিব অচিন্ত কুমার বিশ্বাস জানান, শিক্ষার্থী নাইম হোসেন হৃদয় মোল্যার বাবা ইন্তেকাল করেছেন৷ আমরা খবর পেয়ে তাকে আলাদা পরীক্ষা দেয়ার ব্যাবস্থা করেছিলাম। সে সবার সাথে বসেই পরীক্ষা দেবে বলে আমাদের জানায়। সে স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষা দিয়েছে৷ তার পরীক্ষা গ্রহনে সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত মুকসুদপুর থানার এএসআই শফিকুল ইসলাম জানান, শিক্ষার্থী নাইম হোসেন হৃদয় মোল্যা ভালভাবে পরীক্ষা দিয়েছে। আমি তার উজ্জ্বল ভবিষ্যত কামনা করি।

(এমএস/এএস/ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

১৮ এপ্রিল ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test