E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

স্ত্রীকে খুন করে পালিয়ে থাকা স্বামী পুলিশের হাতে ধরা 

২০২৪ এপ্রিল ১১ ১০:২৪:০৫
স্ত্রীকে খুন করে পালিয়ে থাকা স্বামী পুলিশের হাতে ধরা 

দীপক চন্দ্র পাল, ধামরাই : ধামরাইয়ে ২২ বছর ঘর সংসার করার পর বউ খুন করে পালিয়ে থাকা স্বামী ১ মাস সাত দিনের মাথায় পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে। গত বুধবার সকাল সাড়ে দশটায়  গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা আরিচা মহা সড়কের ধামরাই ঢুলিভীটা বাস ষ্ঠ্যান্ড এলাকা থেকে ধামরাই থানার এসআই সুজন এই খুনি আশ্রব আলীকে গ্রেফতার করেছেন।

দীর্ঘ দিনের পারিবারিক জড় ধরে গত ১২ মার্চ দিবাগত রাত সাড়ে বারটার দিকে (১৩ মার্চ) রাতের খাবার খেয়ে তাদের তিন ছেলে সন্তানদের ঘুমিয়ে দিয়ে বাহির থেকে দরজার শিকল লাগিয়ে দিয়ে বন্ধ করে দেয়।

এরপর স্ত্রী হেলেনা বেগমকে নিয়ে ঘুমানোর কথা বলে বিছানায় যায়।পরপর ধারালো ছুরি দিয়ে বুকের বাম পাশে ধারালো ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে। এসময় হেলেনার আত্ম চিৎকারে পাশে থাকা বড় ছেলে রাসেল দরজা ভেঙ্গে মায়ের কাছে গেলে ছেলেকেও বাবা ,মায়ের মতোই একই কায়দায় হত্যার উদ্দেশ্যে পাজরে ধারালো ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে।

মা ছেলে দুজন মাটিতে লুটিয়ে পড়ে দাপাদাপি করছিল। মা ছেলের ডাক চিৎকারে পাশে ঘরের ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে দেখেন আশ্রব আলী রক্তাক্ত ছুরি হাতে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এসময় প্রতি বেশীরা মা হেলেনা ও বড় ছেলে রাসেলকে উদ্ধার করে সাভারে এনাম হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হেলেনাকে মৃত ঘোষনা করেন।

আহত হেলেনার বড় ছেলে রাসেলকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা এখন ভালোর দিকে।এসময় হেলেনার অপর দুই সন্তান হিমেল ও হায়দার আলী খুনি পিতা কর্তৃক ঘরের বাহির থেকে শিকল লাগিয়ে দরজার বন্ধ করে রাখায় বেচে যায় বলে পরিবারের লোক জন ও পুলিশ জানায়।

হেলেনার মা মমতাজ বেগম জানান ২২ বছর আগে তার মেয়ে হেলেনাকে ধামরাইয়ের কোল্লা ইউপির কেলিয়া মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত আতাব উদ্দিনের পুত্র আশ্রব আলরি সাথে বিয়ে দেন।তাদের সংসারে বড় রাসেল(১৮) ,হিমেল (১৩), হায়দার আলী (৫) সহ তিন সন্তান রয়েছে বলে জানান মা মমতাজ।বিবাহের পর থেকেই আশ্রব আলী তেমন কোনো কাজ কর্ম করতো না জানান। স্বামী আশ্রব আলী বিবাহের পর থেকেই হেলেনাকে নানা অযুহাতে শারিরিক মানুষিক নির্যাতন করতো। দীর্ঘ দিনের পারিবারিক কলহের জেড় ধরে গত ১২ মার্চ দিবাগত রাত সাড়ে বারটার দিকে (১৩ মার্চ) রাতের খাবার খেয়ে তাদের তিন ছেলে সন্তাদের ঘুমিয়ে দিয়ে বাহির থেকে দরজার শিকল লাগিয়ে দিয়ে বন্ধ করে হেলেনাকে হক্যা করে। বাদী মা মমতাজ বেগম এ খুনির ফাসি চান।

পুলিশে এসআই ও এমামলার আইও এসআই সুজন বলেন, দীর্ঘ দিনের পারিবারিক কলহ থেকে এখুনের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর যথারীতি ধামরাই থানায় একটি খুনের মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নম্বর-১২, তারিখ-১৩-০৩-২০২৪ ইং।ধারা -৩০২/৩২৬/৩০৭। মামলা রুজুর পর থেকেই পালিয়ে থাকা আসামীকে ধরার জন্য গোপনে অভিযান অব্যাহত রাখি। সোর্স দিয়ে খোজ খবর রাখতে শুরু করি। এরই ধারাবাহিকতায় জেনেই আজ বুধবার সকাল সাড়ে দশটায় ঢুলিভীটা এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছি বউ খুনি আশ্রব আলীকে।

(ডিসিপি/এসপি/এপ্রিল ১১, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২৪ মে ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test