E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

উপজেলা নির্বাচন

সালথায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে ওয়াদুদ মাতুব্বর

২০২৪ এপ্রিল ১৬ ১৯:০৪:০৭
সালথায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে ওয়াদুদ মাতুব্বর

আবু নাসের হুসাইন, সালথা : আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। ২১ এপ্রিল মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। ২১ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে।

এই নির্বাচনকে ঘিরে সালথা উপজেলায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ওয়াদুদ মাতুব্বর।

এলাকার সাধারণ মানুষ তাকেই চায় আবার। ভোটারদের কাছে ওয়াদুদ মাতুব্বর একমাত্র যোগ্যপ্রার্থী।

নবিরণ বেগম নামে এক মহিলা বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াদুদ মাতুব্বরেে কাছে গেলে প্রথমে হেসে দিয়ে বলে কাকি কেমন আছেন। তারপর কিছু খেতে দেন, খাওয়া শেষে চাল-ডাল কেনার জন্য কিছু টাকাও দেন। তার মতো তো আর কাউকে কখনও পাইনি। তাই তাকে এবারও ভোট দিবো।

জয়নাল শেখ নামে এক রোগি বলেন, বিপদে পড়ে ওয়াদুদ মাতুব্বরের কাছে গেছিলাম চিকিৎসার জন্য। তিনি আমার চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা করেছেন। তিনি অন্যদের মতো সহযোগিতা না করলেও পারতেন। আমি চাই সে আবারও উপজেলা চেয়ারম্যান হোক। বিপদে পড়লে তাকে পাশে পাওয়া যাবে। তার জন্য মন থেকে দোয়া করি।

লিপন নামে এক যুবক বলেন, একটি মিথ্যা মামলার বিষযে ওয়াদুদ মাতুব্বরের কাছে আমার পরিবার গিয়েছিলো। তখনই ওয়াদুদ মাতুব্বর শীতের মধ্যে দৌড়াদৌড়ি করে আমাকে অনেক হেল্প করেছেন। তাকে তো বিপদ-আপদে পাওয়া যায়। যা কখনও পাইনি আমরা। তাই আমরা আবারও তাকে ভোট দিবো। তিনি বলেন, তার জনপ্রিয়তা আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে।

ইয়াদ আলী নামে এক কৃষক বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মাঝে মাঝে আমাদের বাজারে এসে আমাদেরকে নিয়ে চায়ের দোকানে বসে সবাইকে চা খাওয়ান। আর আমাদের খোঁজখবর নেন। পাশাপাশি কোন ধরণের মারামারী না করার জন্য পরামর্শ দেন। সেজন্য আমরাও নিয়াত করেছি এবার তাকে ভোট দিবো। সে ভালো একজন মানুষ।

এদিকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার নেতাকর্মীরা জানান, এবারের সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শাহদাব আকবর লাবু চৌধুরী নির্বাচিত হওয়ার পিছনে সব চেয়ে বেশি ভূমিকা ছিলো উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াদুদ মাতুব্বরের৷ সকল ষড়যন্ত্র টপকিয়ে এলাকার মানুষকে সাথে নিয়ে তিনি লাবু চৌধুরীর বিজয় সুনিশ্চিত করেন। এছাড়াও নিয়মিত নেতাকর্মীদের খোঁজখবর নেন তিনি। ওয়াদুদ মাতুব্বর সব সময় ইউনিয়ন, ওয়ার্ড ও গ্রামের তৃণমুলের নেতাকর্মীদেরকে মারামারী, ভাংচুর হামলা ও মামলা করা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেন। সব সময় মানুষের সাথে মিশেন। কারো প্রতি কোন হিংসা বিদ্ধেষ নাই তার। বিপদে পড়লে সহজেই তাকে পাশে পাওয়া যায়৷ নিঃসন্দেহে একজন ভালো মানুষ সে, তাকে আবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার ইচ্ছা সকলের। উপজেলা পর্যায়ে দলকে শক্ত করতে ও এলাকার শান্তি ও নিরীহ মানুষের সুখে- দুখে পাশে থাকার জন্য ওয়াদুদ মাতুব্বরের কোন বিকল্প নেই।

(এএন/এসপি/এপ্রিল ১৬, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২৩ মে ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test