E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

গোপালগঞ্জে নিজ বাড়ির সামনে বোমা হামলায় বাবা ও ছেলে আহত

২০২৪ এপ্রিল ২৪ ১৩:২৯:৪৮
গোপালগঞ্জে নিজ বাড়ির সামনে বোমা হামলায় বাবা ও ছেলে আহত

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে দুর্বৃত্তের ছোড়া বোমা হামলা বাবা মাসুদ শেখ (৪৫) ও ছেলে আব্দুল রাশেদ শেখ (৪) মারাত্মক আহত হয়েছে। আহতদের প্রথমে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পরে সেখানে তাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) রাত ৯ টার দিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়নের ঘোষেরচর উত্তরপাড়া এলাকার নিজ বাড়ির সামনে এ বোমা হামলার ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লুৎফুল কবির চন্দনসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এছাড়া গোপালগঞ্জ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন টিম কাজ করছে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনিচুর রহমান বিষয়টি নিশ্চত করেছেন।

আহত মাসুদ শেখ ঘোষেরচর উত্তরপাড়া গ্রামের মন্টু শেখের ছেলে। তিনি গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা প্রহরী পদে চাকরি করেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনিচুর রহমান জানান, গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা প্রহরী মাসুদ শেখ রাত ৯টার দিকে ছেলে নিয়ে মোটর সাইকেলে করে গোপালগঞ্জ শহর থেকে বাড়ি পৌঁছালে ৪ থেকে ৫ জনের ১ দল দুর্বৃত্ত তাদের লক্ষ্য করে শক্তিশালী দুটি বোমা নিক্ষেপ করে। বোমা বিস্ফোরনে বাবা-ছেলে দু’জনেই মারাত্মক আহত হন।

বোমার বিষ্ফোরণের শব্দে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। বোমা হামলায় তাদের শরীরের অন্তত ৩০ ভাগ পুড়ে যায়। এ সময় মাসুদ শেখের বাম পায়ের মাংস উড়ে যায় এবং হাড় ভেঙ্গে যায়। পরে সেখানে তাদের শারীরিক অবস্থা অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

আহত মাসুদ শেখের ভাবি ফরিদা বেগম বলেন, রাতে আমরা ঘরে ভাত খাচ্ছিছিলাম। এসময় লোডশেডিংয়ে অন্ধকার হয়ে যায়। বিকট শব্দে শুনে ঘর থেকে দৌঁড়ে বের হই। এসে দেখি মাসুদ ও তার ছেলে রক্তাত অবস্থায় রাস্তার উপর পড়ে আছে। একটু পাশে তার মোটরসাইকেল পড়ে আছে, মোটরসাইকেল থেকেও আগুনের ধোঁয়া বের হচ্ছিল। ঘরের দরজায় বড় ছিদ্র হয়েছে। কে বা কারা এঘটনা ঘটিয়েছে তাদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানাই।

গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক গাজী মো. আশিকুজ্জামান বলেন, রাত সাড়ে ৯ টার দিকে জরুরী বিভাগে মাসুদ শেখ ও তার ছেলে আব্দুল রাশেদকে নিয়ে আসে। মাসুদ শেখের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত হয়েছে। বাম পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেছে ও হাড় কেটে গেছে। পেটে বড় ইনজুরি রয়েছে। আমার ধারণা তার পেটের মধ্যে কিছু রয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে তাকে অপারেশন করিয়ে পেট থেকে সেটা বের করতে হবে। এছাড়া মাসুদের শরীরের ৩০ শতাংশ ও ছেলের শরীর ২৭ শতাংশ পুড়ে গেছে। মাসুদের অবস্থা আশংকাজনক। তবে ছেলে আব্দুল রাশেদ শংকামুক্ত। তাদের দুজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনিচুর রহমান বলেন, মাসুদ শেখ তার ছেলেকে নিয়ে রাতে বাড়িতে ফিরছিলো ওই সময় কে বা কারা বিস্ফোরক দ্রব্য নিক্ষেপ করে। এতে বাবা-ছেলে আহত হয়েছে এবং শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে গেছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লুৎফুল কবির চন্দন স্যারসহ আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এছাড়া গোপালগঞ্জ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন টিম কাজ করছে।

তিনি আরো বলেন, আহত পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোন অভিযোগ দেয়নি। তারপরও আমরা তদন্ত শুরু করেছি। এ ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করতে অভিযান শুরু করা হয়েছে। দ্রুত আমরা এ ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে পারব ।

(এমএস/এএস/এপ্রিল ২৪, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২৯ মে ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test