E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

পাবনায় আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে একাধিক বহুতল ভবন নির্মাণ, রূখবে কে?

২০২৪ মে ১৫ ১৮:৪৬:০৯
পাবনায় আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে একাধিক বহুতল ভবন নির্মাণ, রূখবে কে?

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনা সদর উপজেলা দোগাছি ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের মহেন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রেললাইন সংলগ্ন মহেন্দ্রপুর মৌজায় হঠাৎ করে একাধিক বহুতল ভবনের নির্মাণের হিড়িক পড়েছে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ সমস্ত বহুতল ভবনের নির্মাণের কোন অনুমোদন নাই। এভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ হলে মহেন্দ্রপুর পশ্চিম অঞ্চল ও উত্তর-পূর্ব অঞ্চল বর্ষার সময় পানিতে নিমজ্জিত হবে। বহুতল ভবন গুলো এত অধিক উচ্চতায় তৈরি হচ্ছে যে এই নিম্ন অঞ্চল সবসময় পানির মধ্যে ডুবে থাকবে এবং পরিবেশ নষ্ট হবে।

এ বিষয়ে এলাকার সচেতন মহল থেকে যেমন মাহবুবা কাজল, নাজিমুদ্দিন ও সোলায়মান নামে তিনজন ব্যক্তি পাবনা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর গত ২১ এপ্রিল একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সদর উপজেলা স্থাপনা/ নকশা অনুমোদন কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম ২৩ এপ্রিল নির্মানাধীন ভ্রমণ মালিকদের একটি চিঠি ইস্যু করেন।

চিঠিতে মহেন্দ্রপুর ঢাকা মহাসড়ক হতে সরকারি শিশু সদন পর্যন্ত এ এলাকাধীন স্থানে অপরিকল্পিত নিয়ম বহির্ভূত এমারত স্থাপনা/ নির্মাণ করেছেন মর্মে যে অভিযোগ উঠেছে সে সমস্ত নির্মাণাধীন ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ রেখে ইমারত ও স্থাপনা নকশা অনুমোদন কমিটি কর্তৃক অনুমোদনের জন্য বলা হল। এ সমস্ত ভ্রমণের মালিক আজ পর্যন্ত ইমারত/ স্থাপনার নকশা অনুমোদনের কোন আবেদনে জমা দেয়নি।

এভাবে অপরিকল্পিতভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ হলে ভবিষ্যতে এই এলাকার পরিবেশ দূষিত হবে এবং ঝুঁকির মধ্যে থাকবে বলে দাবী পরিবেশবিদদের। রেললাইনের পাশে হযরত নামে নির্মাণাধীন বহুতল ভবনের মালিক তার ভবনের নিচতলা একটি মাছের কোল্ড স্টোর স্থাপন করছেন যা নির্মাণাধীন এটাও পরিবেশের কোন ছাড়পত্র নাই। এভাবে আবাসিক ভবনের নিচতলায় মাছের আরো বা ওয়ার্কশপ বা বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করে পরিবেশ নষ্ট করছে। বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কাছে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন সচেতন মহল।

(এনএন/এসপি/মে ১৫, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২৪ মে ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test