E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শিক্ষার্থীদের পিঠে হাটা উপজেলা চেয়ারম্যান বরখাস্ত হচ্ছেন

২০১৭ ফেব্রুয়ারি ০৩ ১৫:০৫:০৩
শিক্ষার্থীদের পিঠে হাটা উপজেলা চেয়ারম্যান বরখাস্ত হচ্ছেন

নিউজ ডেস্ক : চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলা চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটোয়ারীকে বরখাস্ত করতে যাচ্ছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ সূত্রে এই তথ্য জানা যায়।
এই আদেশ হতে হতে রবিবার হয়ে যেতে পারে।

কর্মকর্তারা জানান, ওই উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। এই অবস্থায় তাকে দায়িত্ব পালন করতে দিতে চায় না মন্ত্রণালয়। তিনি আপাতত বরখাস্ত হচ্ছেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আসার পর তার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এর আগে উপজেলা চেয়ারম্যানের এই কাণ্ডের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর তীব্র সমালোচনার মুখে ঘটনাটি তদন্ত করতে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার সৈয়দা সারোয়ার জাহানকে প্রধান করে একটি কমিটি করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। বুধবার গঠন করা ওই কমিটি আজ বৃহস্পতিবার থেকে কাজ করবে বলেও জানানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয় থেকে সুষ্ঠু তদন্ত করে ঘটনার মানবিক এবং স্বাস্থ্যগত দিক বিবেচনায় নিয়ে কঠোর পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং পরিচালনা পর্ষদের সভাপতিসহ মোট পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে হাইমচর থানায়।

সোমবার হাইমচর উপজেলার নীলকমল ওসমানিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে নবম ও দশম শ্রেণির কিছু শিক্ষার্থী মিলে একটি ‘মানবসেতু’ তৈরি করে। পরস্পরের হাত ধরে একদল ছাত্র সেতু বানায়। সে সেতুর উপর উপুড় হয়ে শুয়ে ছিল আরও কয়েকজন ছাত্র। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যায় সবার উপরে হাঁটছেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটোয়ারী।

হাইমচরের উপজেলা চেয়ারম্যান হোসেন পাটোয়ারী গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেই পদ্মা সেতু নির্মাণ করছেন তার প্রতি সন্তুষ্টি জানিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আমাকে মানবসৃষ্ট সেতুর উপর দিয়ে হাঁটার অনুরোধ জানায়। অনিচ্ছা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদের অনুরোধে আমি তাদের পিঠের উপর দিয়ে কিছু সময় হাঁটি।’

জনাব পাটোয়ারি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের পিঠের উপর দিয়ে হাঁটার কোনো ইচ্ছে আমার ছিল না। আমি তাদের নিষেধও করেছিলাম। কিন্তু তাদের জোরালো অনুরোধে আমি সাড়া দিতে বাধ্য হই।’

শিক্ষার্থীরা জানান, এবারই ওই স্কুলে প্রথমবারের মতো এই ঘটনা ঘটেনি। নিয়মিতই সেখানে এই চর্চা হয়ে আসছে। আর এবার উপজেলা চেয়ারম্যান এই ঘটনা ঘটানোর পর তার কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা উপহারও পেয়েছে শিক্ষার্থীরা।

(ওএস/এস/ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

১৩ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test